• 01 Mar, 2024

সুলতান মেলায় ঐতিহ্যবাহী ষাঁড়ের লড়াই

সুলতান মেলায় ঐতিহ্যবাহী ষাঁড়ের লড়াই

বরেণ্য চিত্রশিল্পী এস এম সুলতানের ৯৮তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত সুলতান মেলার সপ্তম দিনে ষাঁড়ের লড়াই প্রতিযোগিতা

ছোটবেলায় আমরা কত ধরনের খেলাধুলা করেছি। হাডুডু, ক্যারাম, গোল্লাছুট, কতকিছুই না খেলেছি।বর্তমান সময়ের অধিকাংশ ছেলেমেয়ে খেলাধুলা না করে ফোন নিয়ে পড়ে থাকে।তাদের ফোনে নাকি সব আছে তাই তাদের খেলাধুলা করা লাগে না।অথচ এ ধরনের খেলাধুলার অনুষ্ঠান কতটা আনন্দ দেয় তা বলে বুঝানো যাবে না।’

বরেণ্য চিত্রশিল্পী এস এম সুলতানের ৯৮তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত সুলতান মেলার সপ্তম দিনে ষাঁড়ের লড়াই প্রতিযোগিতায় মোকরিম মিয়া নামের এক বয়োজ্যেষ্ঠ দর্শনার্থী এভাবেই নিজের অনুভূতি ব্যক্ত করেন।

শনিবার(১৪ জানুয়ারিদুপুর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত নড়াইল জেলা প্রশাসন  এস এম সুলতান ফাউন্ডেশনের আয়োজনেএবং জেলা ক্রীড়া সংস্থার সার্বিক ব্যবস্থাপনায়  প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়।নড়াইল সরকারি ভিক্টোরিয়া কলেজ সংলগ্ন কুড়ির ডোব মাঠে নড়াইলযশোরখুলনাবাগেরহাটসাতক্ষীরাসিলেট,চট্টগ্রামসহ বিভিন্ন জেলার বিভিন্ন আকৃতির ৭০টি ষাঁড়  প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়।এ প্রতিযোগিতা দেখতে  নানা বয়সের দর্শনার্থীর ভিড়ে বিশাল আকৃতির মাঠটি কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে যায়।এছাড়াও মাঠের পাশের বাড়িগুলোর ছাদ যেন পরিনত হয় একেটি স্টেডিয়ামের গ্যালারি।

হায়েনালালময়নাকালাপাহাড়লালপাখিখুলনার টাইগার বিভিন্ন বাহারি নামের ষাঁড় নিজেদের শক্তিমত্তা  রণকৌশল দেখিয়ে প্রাণপণে লড়ে যাচ্ছিল প্রতিপক্ষের সঙ্গে।বিশালা আকৃতির এসব ষাঁড় যেন মালিকের একান্ত বাধ্যগতনিজেদের বুদ্ধিমত্তা  শক্তি প্রদর্শনের পাশাপাশি তাদের মালিকের প্রতিটা নির্দেশনা মেনে প্রতিপক্ষের ষাঁড়কে ঘায়েল করতে মরিয়া হয়ে ওঠে।ষাঁড়  মালিকের এমন প্রেম দর্শকদের মুগ্ধ করে।প্রতিযোগিতায় সবাইকে হারিয়ে ১ম পুরস্কার ফ্রিজ জিতে নেয় যশোরের নোয়াপাড়ার রানাবসের ষাঁড়২য় পুরস্কার ৩২ইঞ্চি এলইডি টেলিভিশন জিতেছে মাগুরার আলাউদ্দিনের ষাঁড়আর ৩য় ২৬ ইঞ্চি এলইডি টেলিভিশন জিতেছে যশোরের নোয়াপাড়ার কিংকরের ষাঁড়টি।

ষাঁড়ের লড়াই দেখতে আসা কলেজছাত্র ইফাজ আমান বলেনআধুনিকায়নের ফলে আমরা প্রযুক্তিনির্ভর হয়ে পড়ছি। প্রযুক্তির পাশাপাশি আমাদের ঐতিহ্য গ্রামীণ খেলাধুলাকেও বাঁচিয়ে রাখা উচিত।আমাদের নড়াইলবাসীর ঐতিহ্য সুলতান মেলা। দুই বছর পর এটা হচ্ছে এতে আমরা খুবই আনন্দিত।এ মেলায় দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে লোকজন আসছে ষাঁড়ের লড়াই দেখতে। এটা আমাদের কাছেও ভালো লাগছে।এ ধরনের আয়োজন বেশি হলে আমরা নতুন প্রজন্ম প্রাচীন খেলাধুলা  সংস্কৃতিতে আগ্রহী হব।

পরিবার নিয়ে ষাঁড়ের লড়াই দেখতে আসা এক নারী দর্শনার্থী বলেনবাচ্চারা আগে কখনো ষাঁড়ের লড়াই দেখেনি।সুলতান মেলায়  ধরনের আয়োজন হয় খুব ভালো লাগে। আমরা সবাই উপভোগ করছি।

চট্টগ্রাম থেকে আসা বিদ্যুৎ বিহারি বলেনইউরোপ  ল্যাটিন আমেরিকার দেশগুলোতে ষাঁড়ের লড়াই একটি জনপ্রিয় খেলা। আমাদের দেশে এই খেলা প্রাচীনকাল থেকে হয়ে আসছে।যদিও গ্রামবাংলার ঐতিহ্যবাহী এই খেলাগুলো প্রায় বিলুপ্তির পথে।নড়াইলের সুলতান মেলা এই ধরনের খেলার আয়োজনের মাধ্যমে নতুন প্রজন্মের কাছে বিলুপ্তি প্রায় খেলাগুলোকে ধরে রেখেছে। আমরা সাধুবাদ জানাই।

জেলা ক্রীড়া সংস্থার কোষাধ্যক্ষ  সুলতান মেলা কিউট গ্রামীণ উৎসব পরিচালনা কমিটির সদস্য সচিব মোআব্দুর রশীদ মন্নু  বলেনসুলতান মেলায়  ধরনের গ্রামীণ খেলাধুলার আয়োজনের মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে নতুন প্রজন্মকে  ধরনের খেলার সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেওয়া।নতুন প্রজন্ম  ধরনের সুষ্ঠু বিনোদনের মাধ্যমে পড়াশোনার পাশাপাশি খেলাধুলার প্রতি আগ্রহী হবে।দূরদূরান্ত থেকে আসা দর্শনার্থীদের মিলন মেলার আয়োজন করতে পারায় আমারাও আনন্দ বোধ করি।

সুলতান মেলায় বাড়তি মাত্রা যোগ করতে প্রতিবারের ন্যায় এবারও লাঠিখেলাকলাগাছে ওঠাভলিবলহ্যান্ডবলহাড়িভাঙাঘোড়ার গাড়ির দৌড়কুস্তিআর্চারিদড়ি টানাটানিমহিলাদের কাবাডিষাঁড়ের লড়াই প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়।

উল্লেখ্যগত  জানুয়ারি থেকে নড়াইলে বরেণ্য চিত্রশিল্পী এস এম সুলতানের ৯৮তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে দুই সপ্তাহব্যাপী সুলতান মেলা শুরু হয়েছেচলবে আগামী ২০ জানুয়ারি পর্যন্ত।মেলায় এস এম সুলাতানের জীবনদর্শনশিল্পীসত্তা  কর্মময় জীবনের ওপর প্রতিদিন সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। দেশ-বিদেশের বিশিষ্ট শিল্পীদের আঁকা ছবির প্রদর্শনীশিশু-কিশোরের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতাসহ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন রয়েছে।এছাড়াও মেলাকে প্রাণবন্ত করে তুলতে দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে রকমারি পসরা নিয়ে দোকান সাজিয়ে বসেছেন ব্যবসায়ীরা।

আগামী ২০ জানুয়ারি মেলার সমাপনী অনুষ্ঠানে স্থানীয় সরকারপল্লী উন্নয়ন  সমবায় প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে নির্বাচিত একজন গুণী চিত্রশিল্পীকে সুলতান পদক-২০২২- ভূষিত করবেন এবং সুলতান স্বর্ণপদক তুলে দেবেন বলে জানিয়েছেন আয়োজকরা।