• 18 Jun, 2024

শিশু-কিশোরদের আঁকা বিশ্বের দীর্ঘতম কাগজ চিত্র ও নক্শা

শিশু-কিশোরদের আঁকা বিশ্বের দীর্ঘতম কাগজ চিত্র ও নক্শা

নড়াইলের অবৈতনিক আর্টস্কুল শিল্পাঞ্জলির শিশু-কিশোর চিত্রশিল্পীরা এঁকেছে বিশ্বের দীর্ঘতম কাগজ চিত্র ও নক্শা।

মাসুম জব্বারী : বিশ্বয়কর এই বড় কাগজ চিত্রের দৈর্ঘ্যে ২,০২৩ ফুট ও প্রস্থে ৩ ফুট এবং পেপার রোলের ওজন ১০০ কেজি মত। ৬ হাজার ১৩৭.৫১ বর্গ ফুটের এই বিশাল চিত্র ও নক্শা, যার মধ্যে দৃশ্য রয়েছে ৩ হাজার ২৯০.৩১ বর্গফুট এবং নক্সা রয়েছে ২ হাজার ৮৪৭.২০ বর্গফুট। এই চিত্র ও নক্সা আঁকতে শিল্পাঞ্জলি আর্টস্কুলের শিশু-কিশোর চিত্রশিল্পীদের সময় লেগেছে ৩ বছর ১৫ দিন (১৭১ দিন সপ্তাহে ১দিন করে)। এই বড় কাগজ চিত্রের ৭০% ভাগ কাজ নৃ-গোষ্ঠী সম্প্রদায়ের শিশু-কিশোর চিত্রশিল্পীদের এবং বাকী ৩০% ভাগ কাজ স্থানীয় শিশু-কিশোর চিত্রশিল্পীদের। যা শুরু হয়েছিলো ২০১৬ সালের ০২ ডিসেম্বর এবং চলমান ছিলো ২০২০ সালের ২৪ মার্চ পর্যন্ত।

শিল্পাঞ্জলির শিশু-কিশোর চিত্র শিল্পীরা আমেরিকান কার্তিজ লম্বা আর্ট পেপারে মোম রং ব্যবহার করে তাদের ইচ্ছা মতো নিজেদের ভাবনা এবং আবেগ দিয়ে নানা বিষয় ফুটিয়ে তুলেছে নান্দনিক ভাবে। তাদের চিত্রের ভিতর আঞ্চলিকতার বিষয় উঠেছে এসেছে শৈল্পীক ভাবে। ধর্ম-বর্ণ, মসজিদ, মন্দির আচার-অনুষ্ঠান, পরিবেশ, প্রকৃতি, খেলাধুলা, মুক্তিযুদ্ধ, ফুল-ফল, সাংস্কৃতিক কর্মকান্ড, প্রভৃতি বিষয় তারা ফুটিয়ে তুলেছে শৈল্পীক নান্দনিকতার মধ্য দিয়ে। এ যেনো অনবদ্য এক শৈল্পীক লম্বা চিত্র গল্পো। অবৈনিক আর্ট স্কুল শিল্পাঞ্জলির পরিচালক চিত্র শিল্পী বিমানেষ বিশ্বাস এই চিত্র গল্পের নাম দিয়েছেন- “বাংলার শিশুদের পাঁচালী”।

শিল্পী বিমানেস বিশ্বাস বলেন, আমার শিল্পাঞ্জলির শিশু-কিশোর চিত্র শিল্পীরা খুব শিঘ্রই বিশ্বকে চ্যালেঞ্জ করতে যাচ্ছে। আমরা এঁকেছি সবচেয়ে বড় কাগজে বড় চিত্র এবং বড় নক্সা। যা বাংলাদেশের আর কোনো আর্ট স্কুলের শিশু-কিশোর চিত্র শিল্পীরা এমন কি বিশ্বের আর কোনো দেশের আর্ট স্কুলের শিশু-কিশোর চিত্র শিল্পীরা এত বড় কাগজে- বড় দৃশ্য এবং বড় নক্সা এখনো কেউ আঁকতে পারেনি। তিনি আরো বলেন, এ বছর ২০২৩ সালের নভেম্বরে অথবা আগামী বছর ২০২৪ সালে চিত্র শিল্পী এস,এম সুলতানের জন্ম শতবর্ষে এই বিশাল চিত্রকর্মটি সর্ব সাধারণকে দেখানোর জন্য উমুক্ত প্রদশর্নীর আয়োজন করবেন। এমন আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন চিত্রশিল্পী বিমানেষ বিশ্বাস।