• 22 Apr, 2024

নড়াইলে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি

নড়াইলে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি

নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার লক্ষীপাশা আদর্শ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এস. এম মুরাদুজ্জামানের বিরুদ্ধে টাকা আত্মৎসাতের অভিযোগে দায়েরকৃত মামলায় আদালত গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছেন।

 

১৯ ফেব্রুয়ারি, সোমবার সকালে লোহাগড়ার নালিশি আদালতে কাজী আল মামুুন বাদী হয়ে এ মামলা দায়ের করেন। আজ দুপুরে আদালত গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন। মামলা নং সিআর ৮২/২৪।


 

মামলা সূত্রে জানা গেছে, লোহাগড়া পৌরসভার খলিশাখালী গ্রামের কাজী আক্তার হোসেনের ছেলে ও লক্ষীপাশা আদর্শ বিদ্যালয়ের খণ্ডকালীন শিক্ষক কাজী আল মামুনের চাকরি শিক্ষা অধিদপ্তর ও মন্ত্রণালয়ে তদবির করে নিয়মিত শিক্ষক হিসেবে নিয়োগের ব্যবস্থা করে দেবেন বলে প্রধান শিক্ষক এস. এম মুরাদুজ্জামান ২ লক্ষ টাকা দারি করেন। সমঝোতা মতে প্রধান শিক্ষক তিন কিস্তিতে বাদী কাজী আল মামুনের নিকট থেকে ১ লক্ষ ৭০ হাজার টাকা গ্রহণ করেন। কিন্তু দীর্ঘদিন চেষ্টা করেও চাকরি দিতে না পারায় প্রধান শিক্ষক টাকা ফেরত দিতে সম্মত হন।


 

কিন্তু টাকা না দিয়ে আজ কাল করে ঘোরাতে থাকেন। বাদী টাকার জন্য চাপ সৃষ্টি করলে ওই প্রধান শিক্ষক তাকে খণ্ডকালীন শিক্ষক থেকে বাদ দেন এবং টাকা ফেরত দিতে এমনকি টাকা নেওয়ার কথাও অস্বীকার করেন। এ ঘটনায় বাদী আদালতে মামলা করেন।


 

এ ব্যাপারে প্রধান শিক্ষক এস. এম মুরাদুজ্জামান জানান, ওই শিক্ষকের কাছ থেকে আমি কোন টাকা নেই নাই এবং চাকরি স্থায়ীকরণের ব্যাপারে তার সাথে আমার কোন কথাও হয়নি। বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সিদ্ধান্ত মোতাবেক খণ্ডকালীন শিক্ষক থেকে তাকে বাদ দেয়ার কারণে ক্ষুব্ধ হয়ে আমার বিরুদ্ধে মামলা করেছে।