• 21 May, 2024

নড়াইলে মৎসঘেরে বিষ প্রয়োগে আড়াই লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি!

নড়াইলে মৎসঘেরে বিষ প্রয়োগে আড়াই লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি!

নড়াইলকণ্ঠ ॥ নড়াইল সদর উপজেলার কলোড়া ইউনিয়নের বকচারার বিলে মৎস্য ঘেরে বিষ প্রয়োগ করে আড়াই লক্ষাধিক টাকার মাছ নিধনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে নড়াইল সদর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন ভূক্তভোগীরা।

থানায় দায়ের করা লিখিত অভিযোগের সূত্রে জানা যায়, রামনগরচর গ্রামের অংশপতি সরকার ও আব্দুর রউফ মোল্যা দির্ঘদিন যাবত বকচরার বিলে লীজ নিয়ে ৮ বিঘা ঘেরে সাদা মাছ চাষাবাদ করে জীবিকা নির্বাহ করছিল।

গত ১৯/০৫/২০২৩ ইং তারিখে পার্শ্ববর্তী ঘেরমালিক পুর্ব শত্রুতার জের ধরে মাহবুর সরদার (৬৫), সাং - শেখহাটি ও আলম (৬০) সাং- আফরা, অভিযোগকারীদের ঘেরে উপস্থিত হয়ে মাছের ঘেরে বিষ দিয়ে মাছ মেরে ফেলার হুমকি দেয় এবং সেই রাতেই ঘেরে বিষপ্রয়োগ করে। পরেরদিন অংশপতি ও  আব্দুর রউফ মোল্যা ঘেরে গিয়ে দেখতে পান তাদের মাছ সব মরে ভেসে উঠেছে।

তারা এই ঘটনা দেখে কান্নায় ভেঙ্গে পরেন এবং অভিযুক্ত আলম ও মাহবুর সরদারের কাছে বিষ প্রয়োগের বিষয়টি জানতে চান,তারা বিষ প্রয়োগের বিষয়টি স্বীকার করে এবং এই বিষয় নিয়ে থানা পুলিশ করতে নিশেধ করে এবং থানা পুলিশ করলে প্রান নাশের হুমকিদেয়।

এ বিষয়ে ক্ষতিগস্ত  মৎসচাষী অংশপতি ও আব্দুর রউফ জানান, আমরা দির্ঘদিন যাবত এই ঘেরটি লীজ নিয়ে চাষাবাদ করে আসছি, আমাদের এই ঘেরের উপর মাহাবুর ও আলমের নজর অনেক দিনের।তারা আমাদের বিভিন্ন সময় নানা ভাবে হুমকি ও হয়রানী করে আসছিল। আমাদের এখান থেকে সরানোর জন্যই রাতের অন্ধকারে আমাদের ঘেরে বিষ প্রয়োগ করেছে, আমাদের প্রায় আড়াই লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি হয়েছে, আমরা দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।

এদিকে অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে অভিযুক্ত মাহাবুর ও আলম বলেন, 'আমরা এই কাজ করিনি, এ বিষয়ে আমরা কিছু  জানিনা। 

এ বিষয়ে নড়াইল সদর  থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা, ওবায়দুর রহমান  বলেন, ক্ষতিগস্ত পরিবার লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। সেখানে পুলিশ পাঠিয়েছি।  তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।