• 01 Mar, 2024

নড়াইলে আদালতে বিচারাধীন মামলার বিবাদী সুফল বিশ্বাসকে পিটিয়ে হত্যা!

নড়াইলে আদালতে বিচারাধীন মামলার বিবাদী সুফল বিশ্বাসকে পিটিয়ে হত্যা!

ছেলের সামনে বাবাকে পিটিয়ে হত্যা, সন্তান হত্যাকারীদের ফাঁসি চায় মা চেনতারা বিশ্বাস, আজ দুপুরে ঢাকা থেকে ঘটনাস্থল পরিদর্শনে আসছেন হিন্দু বৌদ্ধ পরিষদের নেতৃবৃন্দ। মামলার প্রস্তুতি চলছে, রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত গ্রেফতার হয়নি কেউ!

স্টাফ রিপোর্টার ॥ লোহাগড়া উপজেলার লাহুড়িয়া ইউনিয়নের কল্যাণপুর গ্রামের মৃত্যু অনিল বিশ্বাসের ছেলে সুফল বিশ্বাস (৪০)। সে নছিমন চালিয়ে সংসার চালিয়ে আসছিলো। সুফল বিশ্বাস তার ছেলে সুদেবকে নিয়ে মাঠ থেকে কাজ শেষে বাড়িতে ফিরছিলো। ফেরার পথে ওই গ্রামের দক্ষিণপাড়ায় সিংজোড়া খাল শ্মশাণের কাছে আসলে সুফলকে ঘিরে ফেলে এবং পিটিয়েে ও কুপিয়ে হত্যা করা হয়। বিষয়টি প্রত্যক্ষদর্শি সুফলের ৭ম শ্রেণি পড়ুয়া ছেলে সুদেব বিশ্বাস নিশ্চিত করেছে।

সুদেব বিশ্বাস আরও জানায়, আমার বাবাকে যারা মেরেছে তারা হলো আমাদের গ্রামের রোস্তম সিকদার নিজে, তার ছেলে রুবেল, কামাল এবং রোস্তম সিকদারের স্ত্রী নাজনিন বেগম।

রোস্তাম সিকদারের বাড়িতে গেলে তাদের বাড়ির সবকয়টি ঘরের তালা দেয়া দেখা যায় এবং পুলিশের পাহারা দিতে দেকা যায়।       

সে নড়াইলকণ্ঠকে জানায়, বৃহস্পতিবার (১৭ আগস্ট) আনুমানিক ৬টার দিকে সিংজোড়া খাল শ্মশাণের নিকটে একটি পাটখেতের পাশে  আসলে হঠাৎ ৪/৫ জন লোক এসে আমার বাবা ও আমাকে চারিপাশ থেকে ঘিরে ফেলে এবং লাঠি-সোঠা দিয়ে বাবাকে মারধর করতে থাকে। রড, লাঠি ও ধারালো অস্ত্রের আঘাতে সুফল বিশ্বাস মারাত্মকভাবে জখম হয়। গ্রামের লোকজন তাকে উদ্ধার করে প্রথমে নড়াইল সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানে অবস্থার অবন্নতি হলে তাকে খুলনা মেডিকেল হাসপাতালে নেয়া হয়। এ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ওইদিন (বৃহস্পতিবার) রাত আনুমানিক ১টার দিকে সুফল বিশ্বাস মারা যায়। পরের দিন শুক্রবার সন্ধ্যায় কল্যাণপুর সিংজোড়া খাল শ্মশাণে সুফল বিশ্বাসকে সমাধী দেয়া হয়।  

সুফলের স্ত্রী সোনা বিশ্বাস নড়াইলকণ্ঠকে জানায়, সুফল বিশ্বাস ওই গ্রামের রোস্তম সিকদারের কলেজ পড়–য়া মেয়ের সাথে অবৈধ সম্পর্কে অভিযোগ দিয়ে গ্রাম্য সালিশ বিচারে রোস্তম সিকদারকে আমরা ৩ লক্ষ টাকাও জরিমানা দিয়েছি। এই টাকা আমরা আমি আমার ভাসুর সুপদ বিশ্বাস, নিজের ঘরে কিছু টাকা ছিলো একং ডাঙ্গাপাড়ার মিরাজের নিকট থেকে এই টাকা নিয়ে রোস্তম সিকদারকে দেয়া হয়। তারপরও আমার স্বামীকে তারা আমার ছেলের সামনে মেরে ফেললো।

লোহগড়া থানার ওসি নাছির উদ্দিন জানান, ‘গত ১৭/৮/২০২৩ তারিখ সন্ধ্যা অনুমান ৭ ঘটিকায় পারিবারিক বিরোধেএই সুফল বিশ্বাসকে তার বিরোধীপক্ষ তারা হাতুড়ি, দেশিয়অস্ত্র লাঠি দিয়ে আক্রমন করে এবং পায়ে ও শরীরের বিভিন্ন জায়গায় গ্রুরুতর জখমপ্রাপ্ত হয়। আমরা ধারণা করছি সুফলের সাথে তার প্রতিবেশির পুরাতন একটা নারী নির্যাতন সংক্রান্ত মামলা আছে। মামলাটি আদালতে বিচারাধীন আছে। এই ঘটনার জের ধরে এ হত্যাকান্ড ঘটতে পারে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছি। তবে এ বিষয়ে সুফলের আত্মীয়স্বজনের দায়েরকৃত অভিযোগের প্রেক্ষিতে অন্যান্য কার্যক্রম গ্রহণ করা হবে। যারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে তাদের গ্রেফতারের অভিযান পরিচালনা করছি।’  

সুফলের স্ত্রী সোনা বিশ্বাস নড়াইলকণ্ঠকে আরও জানায়, আজ (১৯ আগস্ট) আমি আমার স্বামী হত্যা সংক্রান্ত মামলা থানায় দায়ের করবো।