• 01 Mar, 2024

নড়াইল নাগরিক কমিটি স্ব-উদ্যোগে কবরস্থান দায়দায়িত্ব নিলো!

নড়াইল নাগরিক কমিটি স্ব-উদ্যোগে কবরস্থান দায়দায়িত্ব নিলো!

নড়াইলকণ্ঠ ॥ এখন থেকে নড়াইল পৌর কেন্দ্রীয় কবরস্থানের সকল কার্যক্রমের দায়দায়িত্ব নড়াইল নাগরিক কমিটির। এ কবরস্থানের সার্বিক উন্নয়নের কাজ করবে এই কমিটি। আমরা গতকাল মঙ্গলবার (২৯ মে) সন্ধ্যায় নাগরিক কমিটির নেতৃবৃন্দ এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

আমরা আজ এই কবরস্থানের পূর্বপাশের ভেঙ্গে ফেলা গেট নির্মাণের কাজ শুরু করেছি। যেসব কবরের নিশানা এখনও পর্যন্ত চিহ্নিত করা হয়নি সেগুলি চিহ্নিত নিশানা দেয়ার কাজ করছি।

বুধবার (৩০ মে) সকাল ৯টার দিকে নড়াইল পৌর কেন্দ্রীয় কবরস্থান চত্বরে নড়াইল নাগরিক কমিটির সদস্য সচিব কাজী ইসমাইল হোসেন লিটন নড়াইলকণ্ঠকে এসব তথ্য জানান।

তিনি জানান, বুলডোজার দিয়ে ভেঙ্গে ফেলা কবরের ইট-খোয়া, কেটে ফেলা গাছের ডাল-পালা সমূহ গুছিয়ে একটি জায়গায় নিয়ে রাখা হচ্ছে। এছাড়া কবরস্থানের উত্তরপার্শ্বে বাউন্ডারী ওয়ালটি নি¤œানের ইট-খোয়া দিয়ে নির্মাণ করা হচ্ছে, সেটা আমরা স্থগিত রাখারও সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

কাজী ইসমাইল হোসেন লিটন নড়াইলকণ্ঠকে আরও জানান, আজ বুধবার (৩১ মে) সন্ধ্যা ৭টায় রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি নড়াইল কার্যালয় এ সম্পর্কে বিস্তারিত জানানোর জন্য সংবাদ সম্মেলন আহবান করা হয়েছে। সেখানে আমার এ কবরস্থান সংরক্ষণ ও উন্নয়নসহ অন্যান্য কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে।

এ সম্পর্কে নড়াইল পৌর মেয়র আঞ্জুমান আরা বলেন, এ ঘটনা সম্পর্কে আপনারা বলার পর এইমাত্র পৌর কবরস্থানের কেয়ারটেকার আমাকে জানালো। নাগরিক কমিটি এটা করতে পারে কি না তা আমার জানা নেই। তবে এ সম্পর্কে আমার প্যানেল মেয়র কাজী জহিরুল হককে ওই নাগরিক কমিটির সাথে সমন্বয় রাখার কথা ছিলো তিনি বলতে পারবেন সর্বশেষ আপডেট। এরপর আমরা পৌর পরিষদ বসে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবো।  

এ সময় প্যানেল মেয়র কাজী জহিরুল হক জানান, পৌর কেন্দ্রীয় কবরস্থান নিয়ে বিদ্যমান পরিস্থিতি নিয়ে মেয়রে পরামর্শে আমি সব সময় নাগরিক কমিটির সাথে সমন্বয় রেখেছি। সর্বশেষ গতকাল মঙ্গলবার (৩০ মে) রাত সাড়ে ১১টার দিকে নড়াইল-২ আসনের এমপি মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা আমাকে ফোনে জানান, নাগরিক কমিটি কাল (৩১ মে) বুধবার সকাল ৯টায় কবরস্থানে যাবে এবং কবরস্থানের সার্বিক উন্নয়নের কাজ শুরু করবে। তখন আমি এমপি মাশরাফীকে বললাম আমাদেরকে দুপুর পর্যন্ত সময় দিতে হবে। যদিও আমি আমার মেয়রকে ওই সময় জানাতে পারি নাই। এখন জানলাম সকাল ৯টা থেকেই নাগরিক কমিটির সদস্যরা কবরস্থানে গিয়ে বিভিন্ন স্থাপনার কাজ শুরু করে দেছে। এখন কে যে কার কথা শুনতেছে বা কে কাকে মানতেছে তার তো কোন আগা-মাথা বুঝলাম না। #