• 20 Jun, 2024

মিধিলির প্রভাবে ভোলায় গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি

মিধিলির প্রভাবে ভোলায় গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় মিধিলির প্রভাবে ভোলায় বৃহস্পতিবার (১৬ নভেম্বর) সকাল থেকেই গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি হচ্ছে। এদিকে সন্ধ্যার পর থেকে ভোলার সড়কে যানবাহন চলাচল কমতে শুরু করেছে। জেলেরাও নদী থেকে তীরে ফিরছেন।

ভোলা জেলা মৎস্য কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদ জানান, জেলেদের নিরাপদে আনতে সকল উপজেলা জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। নিরাপদে আনার কর্যক্রম এখনো চলমান রয়েছে।

ভোলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক হাসান ওয়ারিসুল কবির জানান, কৃষকদের জমিতে আমন ধান রয়েছে। তা এখনো ৮০ ভাগ পাকেনি। এ মুহূর্তে ঘূর্ণিঝড় হলে কৃষকদের এ ধানের ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। ইতোমধ্যে কৃষকদের গবাদিপশু নিয়ে নিরাপদে থাকতে বলা হয়েছে।

জেলা প্রশাসক আরিফুজ্জামান জানান, ঘূর্ণিঝড় মোকাবিলায় প্রাথমিক প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।

এদিকে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলনে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. এনামুর রহমান বলেছেন, বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করা গভীর নিম্নচাপটি বৃহস্পতিবার (১৬ নভেম্বর) রাত ১২টা থেকে ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নেবে। এটি দেশের ১১টি উপকূলীয় অঞ্চলের ১১টি জেলায় আঘাত হানার আশঙ্কা রয়েছে। ঘূর্ণিঝড়টি শুক্রবার বেলা ১২টার মধ্যে উপকূলে আঘাত হানতে পারে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, বঙ্গোপসাগরের দক্ষিণ-পশ্চিমে যে লঘুচাপটি সৃষ্টি হয়েছিল মঙ্গলবার, সেটি গতকাল নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে। বৃহস্পতিবার গভীর নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে, যেটা খুব অল্প সময়ের মধ্যে আজ রাত ১২টা থেকে ঘূর্ণিঝড়ে রূপান্তরিত হবে।

তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশের উপকূলীয় অঞ্চলের ১১টি জেলায় এই ঘূর্ণিঝড়টির আঘাত হানার সম্ভাবনা রয়েছে। জেলাগুলো হলো- সাতক্ষীরা, বাগেরহাট, খুলনা, পিরোজপুর, পটুয়াখালী, ভোলা, বরগুনা, লক্ষ্মীপুর, নোয়াখালী, ফেনী ও চট্টগ্রাম।

নিম্নচাপটি ঘূর্ণিঝড়ে রূপান্তরিত হলে বাতাসের গতিবেগ থাকবে ঘণ্টায় ৬৪ কিলোমিটার থেকে ৮৮ কিলোমিটার- এমন তথ্য জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, এটি সর্বোচ্চ ৯০ কিলোমিটার গতিতে উপকূলে আঘাত হানতে পারে।