• 23 Feb, 2024

ফেনীতে বিধি ভেঙে মনোনয়নপত্র জমা দিলেন আ.লীগের ৩ প্রার্থী

ফেনীতে বিধি ভেঙে মনোনয়নপত্র জমা দিলেন আ.লীগের ৩ প্রার্থী

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে ফেনীর তিনটি আসন থেকে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত তিন প্রার্থী। বৃহস্পতিবার (৩০ নভেম্বর) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ফেনীর জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং কর্মকর্তা মোছাম্মৎ শাহীনা আক্তারের হাতে মনোনয়নপত্র জমা দেন তারা।

ফেনীর তিনটি আসনে নৌকার তিন প্রার্থী হলেন- ফেনী-১ আসনে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সদস্য,  চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাবেক প্রটোকল অফিসার আলাউদ্দিন আহমেদ চৌধুরী নাসিম, ফেনী-২ আসনে নিজাম উদ্দিন হাজারী এবং ফেনী-৩ আসনে যুবলীগের সাবেক ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও প্রেসিডিয়াম সদস্য আবুল বাশার।

এর আগে মনোনয়নপত্র জমা দেওয়াকে কেন্দ্র করে সকাল থেকে ফেনী পৌরসভা চত্বরে জড়ো হন তিনটি আসনের আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের হাজারো নেতাকর্মী। সেখান থেকে ৩ প্রার্থী গাড়ি বহর ও হাজারো নেতাকর্মী নিয়ে বেলা সাড়ে ১১টায় রওনা হয়ে দুপুর সোয়া ১২টার দিকে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে গিয়ে পৌঁছান। এ সময় তাদের কর্মী-সমর্থকরা বিভিন্ন স্লোগান দিতে দিতে গাড়ি বহরের সঙ্গে আসতে থাকেন। এতে ঘণ্টাখানেক শহরে যান চলাচলে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হয়।

 


মনোনয়নপত্র জমা দিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে আওয়ামী লীগের তিন প্রার্থী ফেনীর সামগ্রিক উন্নয়নে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

পরে নির্বাচনী আচরণবিধি প্রসঙ্গে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন হাজারী বলেন, আমরা আজকে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছি। আজকে থেকেই আমরা নৌকার প্রার্থী। জমা দেওয়ার আগ পর্যন্ত কিন্তু আমরা নৌকার প্রার্থী ছিলাম না। এই মুহূর্ত থেকে আমাদের সকল কর্মকাণ্ড নির্বাচন কমিশনে নিয়ম-নীতি অনুসারে চলবে। আজকের পর থেকে আর কোনো কিছুরই ব্যত্যয় ঘটবে না।  

 


নির্বাচনী আচরণবিধি অনুযায়ী, একজন প্রার্থী সর্বোচ্চ পাঁচজনকে সঙ্গে নিয়ে মনোনয়ন ফরম জমা দিতে আসতে পারবেন। এক্ষেত্রে কোনো ধরনের মিছিল কিংবা শোডাউন করা যাবে না।

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন আগামী বছরের ৭ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে। তফসিল অনুযায়ী, নির্বাচনে প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন ৩০ নভেম্বর। মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই হবে ১ থেকে ৪ ডিসেম্বর, মনোনয়ন আপিল ও নিষ্পত্তি ৬ থেকে ১৫ ডিসেম্বর, প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন ১৭ ডিসেম্বর, প্রতীক বরাদ্দ ১৮ ডিসেম্বর। নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণা ১৮ ডিসেম্বর থেকে ৫ জানুয়ারি সকাল ৮টা পর্যন্ত।