• 21 Apr, 2024

যৌথ মূলধন কোম্পানি পরিদপ্তরে ছদ্মবেশে দুদক

যৌথ মূলধন কোম্পানি পরিদপ্তরে ছদ্মবেশে দুদক

রাজধানীর যৌথ মূলধন কোম্পানি ও ফার্মসমূহের পরিদপ্তরে ছদ্মবেশে অভিযান চালিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। এসময় দালালের দৌরাত্ম্য ও রেজিস্ট্রেশন সংশ্লিষ্ট কাজে ঘুষ গ্রহণের সত্যতা পেয়েছে দুদকের এনফোর্সমেন্ট টিম।

দুদকের প্রধান কার্যালয় থেকে ওই অভিযান চালানো হয়েছে বলে মঙ্গলবার (১০অক্টোবর) দুদকের উপপরিচালক (জনসংযোগ) মুহাম্মদ আরিফ সাদেক বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

দুদক জানায়, রাজধানীর কারওয়ান বাজারে যৌথ মূলধন কোম্পানি ও ফার্মসমূহের পরিদপ্তরে পরিদর্শকের বিরুদ্ধে বিভিন্ন কোম্পানির ফাইল আটকে রেখে ঘুষ দাবির অভিযোগের প্রেক্ষিতে অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানকালে এনফোর্সমেন্ট টিম সেবাগ্রহীতার ছদ্মবেশে দালালের দৌরাত্ম্য লক্ষ্য করে যাদের মাধ্যমে রেজিস্ট্রেশন ও রিটার্ন সংশ্লিষ্ট কাজে ঘুষ গ্রহণের একটি সিন্ডিকেট গড়ে উঠেছে। এছাড়া, প্রতিষ্ঠানটির সিটিজেন চার্টার দৃশ্যমান স্থানে প্রদর্শন করা নেই মর্মে পাওয়া যায়। টিম অভিযোগ সংশ্লিষ্ট পরিদর্শক কর্তৃক বিগত দুই মাসে নিষ্পত্তিকৃত রেজিস্ট্রেশন ও রিটার্ন আবেদনের তথ্য সংগ্রহ করে। সংগৃহীত তথ্য বিশ্লেষণ করে পূর্ণাঙ্গ রিপোর্ট কমিশন বরাবর দাখিল করবে বলে জানা গেছে। 

অন্যদিকে মাদারীপুর জেলার আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস কার্যালয়ের কর্মকর্তা কর্মচারীদের বিরুদ্ধে পাসপোর্ট সেবা প্রদানে গ্রাহকদের নিকট ঘুষ দাবির অভিযোগের দুদকের মাদারীপুর অফিস থেকে একটি অভিযান পরিচালনা করা হয়। এনফোর্সমেন্ট টিম ছদ্মবেশে সেবা গ্রহীতাদের সঙ্গে কথা বলে ও আনসার সদস্যদের গতিবিধি পর্যবেক্ষণ করে। অফিসের আশপাশে দালালদের উপস্থিতি লক্ষ্য করা যায় এবং একজন আনসার সদস্যের সঙ্গে দালালদের সম্পৃক্ততা পাওয়া যায়। 

অভিযোগের বিষয়ে কার্যালয়ের সহকারী পরিচালককে অবহিত করা হলে তিনি ওই আনসার সদস্যকে তৎক্ষণাৎ প্রত্যাহারের সুপারিশ করেন এবং গ্রাহকদের হয়রানি বন্ধে আইনানুগ যথাযথ ব্যবস্থা নেবেন বলে টিমকে আশ্বস্ত করেন।