• 19 Jun, 2024

যৌথ কোম্পানি গঠনের সিদ্ধান্ত নিলো বাংলাদেশ-ভারত

যৌথ কোম্পানি গঠনের সিদ্ধান্ত নিলো বাংলাদেশ-ভারত

নেপাল ও ভুটান থেকে জলবিদ্যুৎ আনতে বাংলাদেশের পাওয়ার গ্রিড কোম্পানি (পিজিসিবি) ভারতের সংশ্লিষ্ট সংস্থার সঙ্গে একটি কোম্পানি গঠনের সিদ্ধান্ত হয়েছে।

গত বৃহস্পতিবার (০৪ মে) বাংলাদেশ-ভারত যৌথ স্টিয়ারিং কমিটির এক বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত হয়। সেই কোম্পানির মাধ্যমে ভারতের সাত অঙ্গরাজ্যে বিদ্যুৎ আমদানি-রপ্তানির সম্ভাবনা খতিয়ে দেখা হবে। বৈঠকে বাংলাদেশের বিদ্যুৎ সচিব হাবিবুর রহমান ও ভারতের বিদ্যুৎ সচিব অলক কুমার নিজ দেশের পক্ষে প্রতিনিধিত্ব করেন।

বৈঠক সূত্রে জানা গেছে, দুই দেশের মধ্যে উচ্চ ক্ষমতার আন্তঃসংযোগ কাটিহার-পার্বতীপুর-বরানগর ৭৬৫ কেভি ট্রান্সমিশন লাইন বাস্তবায়নের বিষয়টি পর্যালোচনা করা হয়। ক্রস বর্ডার ট্রেড ও প্রকল্পগুলোর যৌথ উন্নয়ন এবং বাংলাদেশে জ্বালানি দক্ষতা প্রকল্পও আলোচনায় স্থান পায়। এতে বলা হয়, দুই দেশের মধ্যে প্রথমবারের মতো ৭৫০ কেভির গ্রিড লাইন বসানো হতে পারে।

পাওয়ার সেলের মহাপরিচালক (ডিজি) মোহাম্মদ হোসেন জানান, বৈঠকে প্রথম নেপালে ৫০০ মেগাওয়াটের একটি কেন্দ্র বসানোর ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়েছে। ওই কেন্দ্র ভারত, বাংলাদেশ ও নেপাল তিন দেশ মিলে করবে। এ ছাড়া ভুটান থেকেও বিদ্যুৎ আনার চেষ্টা করা হবে।

তিনি বলেন, রামপাল ১৩২০ মেগাওয়াটের বিদ্যুৎকেন্দ্র নিয়ে নানা ঝামেলা হচ্ছে। সেগুলোর সমাধান করা হয়েছে। এখন জুনের মধ্যে ভারত-বাংলাদেশ রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্রের দ্বিতীয় ইউনিট শেষ করতে বলা হয়েছে।

বিদ্যুৎ খাতে সহযোগিতা সংক্রান্ত বাংলাদেশ-ভারত যৌথ স্টিয়ারিং কমিটি ও যৌথ ওয়ার্কিং গ্রুপের ২০তম সভা গত বছর মে মাসে ভারতের ধর্মশালায় অনুষ্ঠিত হয়। কমিটির পরবর্তী বৈঠক আগামী নভেম্বরে ভারতে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।