• 17 Jun, 2024

তৃতীয়বারের মতো সিআইপি হলেন দাদা গ্রুপের এমডি এসএম আব্দুল ওয়াদুদ

তৃতীয়বারের মতো সিআইপি হলেন দাদা গ্রুপের এমডি এসএম আব্দুল ওয়াদুদ

দেশের রপ্তানি বাণিজ্যে ২০২২ সালে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখায় তৃতীয়বারের মতো সিআইপি নির্বাচিত হয়েছেন যমুনা গ্রুপের গ্রুপ পরিচালক ও দাদা ব্যাগ ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) এসএম আব্দুল ওয়াদুদ।

 বৃহস্পতিবার বিকালে রাজধানীর একটি পাঁচ তারকা হোটেলে এক অনুষ্ঠানে এ সম্মাননা প্রদান করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী আহসানুল ইসলাম টিটুর হাত থেকে এ সম্মাননা গ্রহণ করেন তিনি।  

সিআইপি কার্ড প্রদান অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব তপন কান্তি ঘোষ। এতে উপস্থিত ছিলেন রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর ভাইস চেয়ারম্যান এএইচএম আহসান ও এফবিসিসিআই সভাপতি মাহবুবুল আলম।

প্রধান অতিথির বক্তব্য প্রদানকালে ব্যবসায়ীদের উদ্দেশে বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমরা স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশের দিকে ধাবিত হচ্ছি। উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে আমরা ২০২৬ সালে যাত্রা শুরু করব। তিন বছর বিভিন্ন দেশে মার্কেট অ্যাক্সেস পাব। উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে এসব সুবিধা সীমিত হয়ে যাবে। এজন্য বিভিন্ন দেশের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক চুক্তির মাধ্যমে সেসব সুযোগ তৈরি করতে পারব। এরই মধ্যে প্রায় ২৬ দেশের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক চুক্তির উদ্যোগ নিয়েছি। ভারত, জাপান, চীন, কোরিয়া, ইন্দোনেশিয়ার বাজারে সহজে প্রবেশের জন্য কাজ করে যাচ্ছি।

যমুনা গ্রুপের গ্রুপ পরিচালক এসএম আব্দুল ওয়াদুদ সিআইপি কার্ড পাওয়ার পর অনুভূতি প্রকাশ করে বলেন, ব্যবসায়ীদের একত্রিত করে সিআইপি কার্ড প্রদানে সরকারের এ উদ্যোগ নিঃসন্দেহে প্রশংসনীয়। এটি ভবিষ্যতে রপ্তানি খাতকে আরও গতিশীল করবে। শুধু তাই নয়, এ ধরনের ইতিবাচক পদক্ষেপ সরকারের বাণিজ্য খাতকে আরও এগিয়ে নিতে সহায়ক হবে। এর উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত হচ্ছে আগের তুলনায় বর্তমানে রপ্তানি আয় বেড়েছে। এ ধারা অব্যাহত থাকলে এটি আরও বাড়তে থাকবে। এতে দেশের রপ্তানি খাত সমৃদ্ধ হবে।  

ভবিষ্যতে ব্যবসায় চ্যালেঞ্জ আসতে পারে কিনা? এমন প্রশ্নের জবাবে আব্দুল ওয়াদুদ বলেন, এটা এক কথায় বলা কঠিন। সময়ই বলে দেবে।  

আগামীতে ব্যবসার পরিধি আরও বাড়ানোর কোনো পরিকল্পনা আছে কিনা? এমন এক প্রশ্নের জবাবে যমুনা গ্রুপের এই পরিচালক বলেন, অবশ্যই বাড়ানোর পরিকল্পনা আছে। কারণ দেশকে এগিয়ে নিতে হলে রপ্তানি আয়ের কোনো বিকল্প নেই। রপ্তানি যত বাড়বে দেশ তত এগিয়ে যাবে। সরকার ও দেশকে শক্তিশালী করতে হলে রপ্তানি আরও বাড়াতে হবে বলে মন্তব্য করেন তিনি। 

অনুষ্ঠানে রপ্তানি বাণিজ্যে অবদান রাখায় বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে ১৮৪ জনকে সিআইপি কার্ড প্রদান করা হয়।