• 18 Jun, 2024

তামিমকে অবসরের সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করতে বলেছেন বিসিবি সভাপতি

তামিমকে অবসরের সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করতে বলেছেন বিসিবি সভাপতি

তামিম ইকবালকে অবসরের সিদ্বান্ত পুনর্বিবেচনা করতে বলেছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। এমন সিদ্বান্তকে ‘আবেগপ্রবণ এবং তাড়াহুড়ো’ বলে অভিহিত করেছেন পাপন।

গতকাল হঠাৎ করেই অবসরের ঘোষনা দেন তামিম। অবসরের বিষয়ে  তামিম বলেন, আফগানিস্তানের বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডে ম্যাচটি তার শেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচ। মাত্র ৩৪ বছর বয়সে এত বড় সিদ্ধান্ত নেয়ার পেছনের কি কারন তা বিস্তারিত জানাননি  তিনি। আরও দুই বা তিন বছর বাংলাদেশ ক্রিকেটকে দেয়ার মত তামিমের মধ্যে  অনেক কিছুই  আছে বলেই  বিশ্বাস  অনেকের।

পাপন বলেন, ভারতে অনুষ্ঠেয়  আগামী ওয়ানডে বিশ্বকাপে দলকে নেতৃত্ব দেয়ার প্রত্যাশায় থাকা তামিমের সিদ্ধান্ত বিস্ময়কর ও হতাশাজনক।

তামিমের হঠাৎ অবসরের পর গতকাল মধ্যরাতে নগরীর  একটি হোটেলে জরুরি সভার পর পাপন বলেন , তামিম ফিরে আসবে। কারণ এখনও ‘অফিসিয়ালি’ অবসর নেননি তিনি।

জরুরি সভার পর সাংবাদিকদের পাপন বলেন, ‘তামিমের অবসর আমাদের জন্য পুরোপুরিভাবে অপ্রত্যাশিত ছিলো। কারণ আমাদের মধ্যে নিয়মিত যোগাযোগ ছিল এবং যেহেতু সে দলের অধিনায়ক, মাত্র তিন দিন আগে আমরা দল নিয়ে কথা বলেছি।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমার কাছে কোন ধারণা নেই, কেন এমন সিদ্বান্ত নিলো সে। এমনকি কিছু দিন আগে, আমাকে সে বলেছিলেন, বিশ্বকাপ এবং আগামী চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে খেলবে। আমি তাকে বলেছিলাম, বিশ্বকাপে দলকে সে নেতৃত্ব দিবে। বিশ্বকাপ কাছাকাছি চলে আসায় অধিনায়কত্ব পরিবর্তনের বিষয়ে কোন আলোচনা হয়নি এবং তার মতো একজন খেলোয়াড়ের কাছ থেকে যখন এই ধরনের ব্যাপার (হঠাৎ অবসরের ঘোষণা) চলে আসে, তখন এটা খুবই দুর্ভাগ্যজনক।’

পাপন জানান, যোগাযোগের চেষ্টা করেও তামিমকে পাওয়া যায়নি। তিনি আরও জানান, তামিমের বড় ভাই জাতীয় দলের ম্যানেজার নাফিস ইকবালের মাধ্যমে একটি বার্তা পাঠানো হয়েছে। বিষয়টি সমাধানের জন্য তামিমের সাথে বসতে চান তিনি এমন বার্তা পাঠিয়েছেন বিসিবি বস।

পাপন বলেন, ‘যেহেতু আমি একটি বার্তা পাঠিয়েছি এখন আমাকে অপেক্ষা করতে হবে এবং দেখতে হবে সে উত্তর দেয় কি-না। আমি আশা করছি, আমরা বিষয়টি সমাধান করতে পারবো। একটা  সিরিজের  মাঝ পথে  একজন অধিনায়ক অবসর নিলে বিষয়টি ভাল দেখায় না এবং এটা ঠিক নয়। আমরা একটি ভাল বিদায় দিতে চাই কিন্তু তারা যদি সেটি না চায় তাহলে আমরা কি করতে পারি।’

আফগানিস্তানের বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডের আগে তামিম বলেছিলেন খেলার জন্য শতভাগ ফিট নন তিনি। ম্যাচ খেলেই নিজের ফিটনেস সর্ম্পকে ধারনা নিবেন। এমন বক্তব্যের পর তামিমের সততা নিয়ে প্রশ্ন তুলেন পাপন। তিনি বলেছিলেন, তামিম কি এটিকে গলির ক্রিকেট ভাবছেন যে এখানে নিজের ফিটনেসের মূল্যায়ন করবেন। এমনকি অভিযোগ করে পাপন জানান, শতভাগ ফিট না হওয়া সত্ত্বেও তামিমের খেলার সিদ্ধান্তে বিরক্ত হয়েছিলেন কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহে।

ধারনা করা হচ্ছে, সততা নিয়ে প্রশ্ন উঠায় ব্যথিত হয়েছে তামিম। কিন্তু এটিকে ‘প্রশ্নের বাইরে’ বলে মন্তব্য করেছেন পাপন।

এটি প্রশ্নের (আমার মন্তব্য ভূমিকা পালন করেছে) বাইরে। আপনি কি মনে করেন, এশিয়া কাপ এবং বিশ্বকাপের আগে হঠাৎ এ ধরনের সিদ্ধান্ত নেয়া যেতে পারে? আমি মনে করি, এটি একটি আবেগপূর্ণ সিদ্ধান্ত। যদিও সে বলেছে, চিন্তা-ভাবনার পর ও পরিবারের সাথে কথা বলে এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি।’

পাপন বলেন, তামিমের এমন সিদ্ধান্ত দলের উপর বিরূপ প্রভাব ফেলবে। তিনি বলেন, ‘এই ধরনের আকস্মিক সিদ্ধান্ত দলের উপর বিরূপ প্রভাব ফেলবে। বিশেষ করে যখন এশিয়া কাপ এবং বিশ্বকাপের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছি আমরা। বিশ্বকাপে সেরাটা দিতে আমরা ভালো অবস্থায় আছি। কিন্তু তার সিদ্ধান্ত আমাদের জন্য বড় চিন্তার বিষয়। আমি মনে করি, এই সময়ে এমন সিদ্ধান্ত আমাদের জন্য ক্ষতিকর।’