• 17 Jun, 2024

সংরক্ষিত আসনে জাতীয় পার্টির মনোনয়ন পেলেন অ্যাডভোকেট সালমা ইসলাম

সংরক্ষিত আসনে জাতীয় পার্টির মনোনয়ন পেলেন অ্যাডভোকেট সালমা ইসলাম

দ্বাদশ জাতীয় সংসদে সংরক্ষিত নারী আসনে জাতীয় পার্টির মনোনয়ন পেলেন দলটির কো-চেয়ারম্যান, সাবেক মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট সালমা ইসলাম। এছাড়া দলের ভাইস চেয়ারম্যান নূরুন নাহারকেও মনোনয়ন দিয়েছে জাতীয় পার্টি।

 বিশিষ্ট শিল্পপতি ও যমুনা গ্রুপের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট সালমা ইসলাম দীর্ঘদিন ধরে সক্রিয়ভাবে রাজনীতির পাশাপাশি সমাজসেবার সঙ্গে সম্পৃক্ত। ২০০৮ সালে তিনি প্রথমবারের মতো সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। এরপর ২০১৪ সালের নির্বাচনে তিনি ঢাকা-১ (দোহার ও নবাবগঞ্জ) আসন থেকে জাতীয় পার্টির প্রতীক লাঙ্গল নিয়ে নির্বাচন করেন। ওই নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থীকে পরাজিত করে দ্বিতীয়বারের মতো সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন তিনি। 

বিশিষ্ট আইনজীবী ও দৈনিক যুগান্তরের প্রকাশক অ্যাডভোকেট সালমা ইসলাম ঢাকা জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন দীর্ঘদিন। এছাড়া তিনি জাতীয় মহিলা পার্টির সভাপতিরও দায়িত্ব পালন করছেন। 

গত ৭ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নিবাচনে জাতীয় পার্টির প্রার্থী হিসেবে ভোটযুদ্ধে নামেন অ্যাডভোকেট সালমা ইসলাম। নির্বাচনে ব্যাপক অনিয়ম ও কারচুপির কারণে জয়ী হতে পারেননি তিনি। গত একাদশ জাতীয় সংসদেও সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। 
এছাড়া গত সংসদে তিনি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। যমুনা গ্রুপের প্রয়াত চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল ইসলামের সহধর্মিণী অ্যাডভোকেট সালমা ইসলাম স্বামীর অনুপ্রেরণায় মূলত রাজনীতিতে পা রাখেন। একজন আদর্শ মা হিসেবে পরিচিত অ্যাডভোকেট সালমা ইসলামের এক ছেলে এবং তিন মেয়ে। ছেলে ক্যাডেট কলেজ থেকে লেখাপড়ার পাঠ চুকিয়ে এরপর যুক্তরাজ্য থেকে উচ্চশিক্ষা গ্রহণ করেন। এখন বাবার হাতে গড়া দেশের অন্যতম বৃহৎ শিল্পপ্রতিষ্ঠান যমুনা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালকের দায়িত্ব পালন করছেন। বড় মেয়ে চিকিৎসক, অন্য দুই মেয়ে অস্ট্রেলিয়া থেকে লেখাপড়া শেষ করেছেন। বাবার নির্দেশ অনুসরণ করে তিন মেয়েই এখন বাবার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান সুনামের সঙ্গে দেখভাল করছেন।

জাতীয় সংসদে সংরক্ষিত আসনে দল থেকে মনোনয়ন পাওয়ায় প্রথমেই মহান আল্লাহতায়ালার শুকরিয়া আদায় করে অ্যাডভোকেট সালমা ইসলাম বলেন, আমি জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও বিরোধীদলীয় নেতা জিএম কাদের, সিনিয়র কো-চেয়ারম্যান ও বিরোধীদলীয় উপনেতা ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ এবং জাতীয় পার্টির মহাসচিব ও বিরোধীদলীয় চিফ হুইপ মো. মুজিবুল হক চুন্নুসহ দলের সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি। 

অ্যাডভোকেট সালমা ইসলাম বলেন, আমি রাজনীতি করি মানুষের জন্য। মানবসেবার জন্য আমি রাজনীতিকে বেছে নিয়েছি। আজীবন আমি মানুষের পাশে থাকতে চাই। বিশেষ করে আমার নির্বাচনি এলাকা দোহার ও নবাবগঞ্জের মানুষের পাশে সুখে-দুঃখে সবসময় থাকতে চাই।    

জাতীয় সংসদে ৫০টি সংরক্ষিত নারী আসনের মধ্যে বুধবার ৪৮টিতে দলীয় মনোনয়ন চূড়ান্ত করেছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। বৃহস্পতিবার বাকি দুটি আসনে মনোনয়ন চূড়ান্ত করল দ্বাদশ জাতীয় সংসদের প্রধান বিরোধীদল জাতীয় পার্টি। 

জাতীয় পার্টির যুগ্ম দপ্তর সম্পাদক মাহমুদ আলমের পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়- দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সংরক্ষিত নারী আসনে জাতীয় পার্টির পার্লামেন্টারি বোর্ড অ্যাডভোকেট সালমা ইসলাম ও নূরুন নাহারকে মনোনয়ন দিয়েছে। 

নূরুন নাহার দ্বাদশ জাতীয় সংসদে ঠাকুরগাঁও-২ আসন থেকে নির্বাচন করেন। তবে জয়ী হতে পারেননি। তিনি ঠাকুরগাঁও জেলা জাতীয় পার্টি আহবায়কের দায়িত্ব পালন করেছেন এক সময়।