• 18 Jun, 2024

পুঁচকে নেপালকে উড়িয়ে সুপার ফোরে ভারত

পুঁচকে নেপালকে উড়িয়ে সুপার ফোরে ভারত

ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ বৃষ্টিতে ভেসে যাওয়ার পর আজ নবাগত নেপালের বিপক্ষেও তেমন আশঙ্কা ছিল বেশ ভালোভাবেই। পাল্লেকেলের আকাশ বেশ কবার বাগড়া দিলেও শেষমেশ মুখ তুলে তাকিয়েছে। খেলতে নামার সুযোগ পেয়ে ভারতও ব্যাটিং প্রস্তুতিটা ঝালিয়ে নিল পুরোদমে।

আগের ম্যাচে পাকিস্তানের বিপক্ষে টপ অর্ডার ব্যর্থ হলেও আজ জ্বলে উঠলেন দুই ওপেনার রোহিত শর্মা ও শুভমান গিল। বৃষ্টিবিঘ্নিত ম্যাচে ডিএলএস মেথডে নেপালের বিপক্ষে ১০ উইকেটের জয় পেয়েছে ভারত।

আর তাতে ৩ পয়েন্ট নিয়ে পাকিস্তানের পর গ্রুপ এ থেকে দ্বিতীয় দল হিসেবে নিশ্চিত করেছে সুপার ফোর। অন্যদিকে প্রথমবার এশিয়া কাপ খেলতে নেমে জয়হীন থেকেই আসর শেষ করেছে নেপাল।


কাট-অফ সময়ের ৫ মিনিট আগে খেলা শুরু করতে পারেন আম্পায়ারেরা। প্রথমে ভারতের সামনে লক্ষ্য ছিল ৫০ ওভারে ২৩১ রান। রান তাড়া করতে নেমে ২.১ ওভারে যখন ভারতের রান বিনা উইকেটে ১৭, তখনই আবার বৃষ্টি শুরু হয়।

বেশ কিছুক্ষণ খেলা বন্ধ থাকে। সময় নষ্ট হওয়ায় ভারতের লক্ষ্য কমে দাঁড়ায় ২৩ ওভারে ১৪৫ রান। তাতে অবশ্য সমস্যা হয়নি ভারতের। ওভার কমে যাওয়ায় আক্রমণাত্মক ক্রিকেট খেলেন রোহিত ও শুভমান গিল। ৩৯ বলে অর্ধশত রান পূর্ণ করেন রোহিত। ১৪ ওভারেই ১০০ রানের জুটি গড়েন তারা। দ্রুত খেলা শেষ করার চেষ্টা করছিলেন ভারতের দুই ওপেনার। শুভমানও নিজের অর্ধশত রান পূর্ণ করেন। শেষ পর্যন্ত ১৭ বল বাকি থাকতে ১০ উইকেটে ম্যাচ জিতে যায় ভারত। রোহিত ৭৪ ও শুভমান ৬৭ রান করে অপরাজিত থাকেন।

এর আগে টস হেরে প্রথমে ব্যাটিংয়ে নেমে ভারতের ক্যাচ মিসের মহড়ায় উড়ন্ত সূচনা করে নেপাল। তাদের দুই ওপেনার কুশাল বুর্তাল ও আসিফ শেখ উদ্বোধনীতে ৯.৫ ওভারে ৬৫ রানের জুটি গড়েন।


২৫ বলে ৩টি চার আর ২টি ছক্কার সাহায্যে ৩৮ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে ফেরেন ওপেনার কুশাল বুর্তাল। এরপর ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে ৬৭ রানে নেপাল হারায় ৫ উইকেট। ৯৭ বলে ৫৮ রান করে ফেরেন আসিফ শেখ।

দলের ব্যাটিং বিপর্যয়ে মিডল অর্ডারে হাল ধরেন সোম্পাল কেমি। তিনি লেজের ব্যাটসম্যানদের নিয়ে লড়াই করে দলের স্কোর মোটাতাজা করেন। ৫৬ বলে একটি চার আর ২টি ছক্কার সাহায্যে ৪৮ রান করেন কেমি। ২৫ বলে ২৯ রান করেন দিপেন্দ্র সিং, ৩৫ বলে ২৩ রান করেন গুলশান ঝা।

ভারতের হয়ে ৯.২ ওভারে ৬১ রান খরচ করে ৩ উইকেট নেন মোহাম্মদ সিরাজ। ১০ ওভারে ৪০ রানে ৩ উইকেট নেন রবিন্দ্র জাদেজা।