• 25 Jun, 2024

প্রতিক্রিয়াশীল চক্র গণতন্ত্রবিরোধী অপপ্রচার চালাচ্ছে : পরশ

প্রতিক্রিয়াশীল চক্র গণতন্ত্রবিরোধী অপপ্রচার চালাচ্ছে : পরশ

আওয়ামী যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ বলেছেন, আজকে দেশে-বিদেশে বাংলাদেশ বিরোধী ষড়যন্ত্র ও অপপ্রচার চলছে। একটা নির্বাচিত সরকারকে অবৈধভাবে হঠানোর চক্রান্ত চলছে। আমাদের নির্বাচন প্রক্রিয়া স্বচ্ছ থাকার পরেও, ভোটার উপস্থিতি সন্তোষজনক থাকার পরেও নির্বাচন ও গণতান্ত্রিক ব্যবস্থার বিরুদ্ধে অবিরাম মিথ্যাচার এবং অপপ্রচার চালিয়ে যাচ্ছে একটা দেশি-বিদেশি প্রতিক্রিয়াশীল চক্র।

শুক্রবার যুবলীগের উদ্যোগে তীব্র তাপদাহে সর্বসাধারণের জন্য ঢাকা মহানগরীর ৩৫টি স্থানে একযোগে সুপেয় পানি সরবরাহ ও সচেতনতামূলক লিফলেট এবং কয়েক শত ছাতা বিতরণ করা হয়। ফার্মগেট (আনন্দ সিনেমা হল সংলগ্ন) স্থানে কর্মসূচির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানের সঞ্চালনা করেন আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. মাইনুল হোসেন খান নিখিল।

তিনি বলেন, ভোটাধিকার প্রয়োগের মাধ্যমে এ দেশের জনগণ তাদের নাগরিক অধিকার প্রয়োগ করবে, কারণ জনগণই সকল ক্ষমতার উৎস। আওয়ামী লীগ হত্যা, ষড়যন্ত্রের রাজনীতিতে বিশ্বাস করে না, আওয়ামী লীগ বিশ্বাস করে এদেশের জনগণের উপর। জনগণই আমাদের আস্থার স্থল।

তিনি আরও বলেন, যুবলীগ সর্বদা নিপীড়িত মানুষের স্বার্থে রাজনীতি করে। তাই আজকে যখন তীব্র তাপদাহে সর্বসাধারণের কষ্ট হচ্ছে, তখন আমাদের যুবলীগের নেতা-কর্মীরা ঘরে বসে নেই। আমাদের নেত্রী সেই শিক্ষা দিয়েছেন। বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা আমাদের আপনাদের কাছে পাঠিয়েছেন সুপেয় পানি দিয়ে, আপনাদের তৃষ্ণা মেটানোর জন্য, আপনাদের কষ্ট লাঘব করার জন্য।

শেখ পরশ বলেন, শেখ হাসিনা রাষ্ট্র দায়িত্বে আছেন বলেই হত্যা, ক্যু, ষড়যন্ত্রের রাজনীতি বন্ধ হয়েছে। বাংলার ইতিহাসে আওয়ামী লীগই একমাত্র স্থিতিশীল, সাংবিধানিক, গণতান্ত্রিক সরকার কায়েম রেখেছেন। গত ১৫-১৬ বছরে ধারাবাহিকভাবে অবৈধভাবে ক্ষমতা দখলের সকল অপচেষ্টা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা প্রতিহত করেছি। বর্তমান সরকার স্থিতিশীল বলেই দেশে অবিশ্বাস্য উন্নয়ন হয়েছে, বিস্ময়কর উন্নয়নমূলক অর্জন সম্ভব হয়েছে। শেখ হাসিনার মতো একজন দক্ষ রাষ্ট্রনায়ক রাষ্ট্রীয় দায়িত্বে আছেন বলেই বাংলাদেশ সারা বিশ্বে সমীহ অর্জন করেছে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেন, সুভাষ চন্দ্র হাওলাদার, ইঞ্জিনিয়ার মৃণাল কান্তি জোদ্দার, তাজউদ্দিন আহমেদ, মো. জসিম মাতুব্বর, মো. আনোয়ার হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. সাইফুর রহমান সোহাগ, ঢাকা মহানগর যুবলীগ উত্তরের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জাকির হোসেন বাবুল, দক্ষিণের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাইন উদ্দিন রানা, দক্ষিণের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক এইচ এম রেজাউল করিম রেজা, কেন্দ্রীয় যুবলীগের প্রচার সম্পাদক জয়দেব নন্দী প্রমুখ।