• 24 May, 2024

নির্বাচনের পর পুঁজিবাজারে গভর্নেন্স ফেরাতে আ‌রও কঠোর হবে বিএসইসি

নির্বাচনের পর পুঁজিবাজারে গভর্নেন্স ফেরাতে আ‌রও কঠোর হবে বিএসইসি

বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম বলেছেন, পুঁজিবাজারে গভর্নেন্সের বিষয়ে চল‌তি মাস থেকেই কঠোর হওয়া শুরু করেছি। নির্বাচনের পর থেকে আরও কঠোর হব।

মঙ্গলবার (২৬ ডিসেম্বর) ঢাকা ক্লাবে ক্যাপিটাল মার্কেট স্ট্যাবিলাইজেশন ফান্ড (সিএমএসএফ) এবং ক্যাপিটাল মার্কেট জার্নালিস্ট ফোরাম (সিএমজেএফ) আয়োজিত বেস্ট রিপোর্টিং অ্যাওয়ার্ড ২০২৩ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

বিএসইসি চেয়ারম্যান বলেন, বিনা কারণে সরকারের যে বদনামগুলো হয় তা থেকে আমরা বেরিয়ে আসছি। গুটিকয়েক লোকের জন্য ক্যাপিটাল মার্কেট বা মানি মার্কেটের দুর্নাম হবে, সেই দিন শেষ।

শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম বলেন, সিএমএসএফ করার সময় চিন্তা করলাম, নতুন একটা প্রোডাক্ট নিয়ে এসেছি। আর আজ সেটা প্রমাণিত হয়েছে। যাদের এটার নেতৃত্বে দেওয়া হয়েছিল, তারা আজ এটা প্রমাণ করেছেন। আসলে নেতৃত্ব দেওয়ার যোগ্যতা সবার থাকে না।

তিনি বলেন, ডিআরইউ, ইআরএফ এবং সিএমজেএফের সঙ্গে আমরা ওতপ্রোতভাবে জড়িয়ে গেছি। এখানে যেসব সাংবাদিক কাজ করেন তাদের সঙ্গে আমাদের প্রতিনিয়তই কথা হয়। যেসব সাংবাদিক ফোন দেন, আমরা সবার ফোন ধরি। আজ যে রিপোর্টিং অ্যাওয়ার্ড দেওয়া হলো, এবার তিনটা হয়েছে। আগামীতে প্রত্যেক ক্যাটাগরিতে তিনটা করে মোট ৯টা অ্যাওয়ার্ড দেওয়ার জন্য আমি আয়োজকদের অনুরোধ জানিয়েছি।

বিএসইসি চেয়ারম্যান বলেন, আমরা আরও ভালো রিপোর্ট চাই। আমরা গুজব চাই না। আপনাদের মধ্যে এরপরও কয়েকজন ঢুকে যায়। তারা গুজব ছড়ায়। আপনাদের মধ্যে যদি কেউ চলে আসে, যারা মিথ্যার আশ্রয় নিয়ে মার্কেট, দেশ ও বিনিয়োগকারীদের ক্ষতি করে, তাদের আপনারাই থামাবেন। আপনারা অ্যাসোসিয়েশনই তাদের থামাবেন। যারা এবার পুরস্কার পেয়েছেন তাদের জন্য শুভ কামনা রইল। আর বাকি যারা রয়েছেন তারা আগামীতে চেষ্টা করবেন, যেন আরও ভালো রিপোর্টিং করতে পারেন। আপনারা যে কষ্ট করে এত তথ্য বের করে নিয়ে আসেন তা আমাদের খুব কাজে লাগে।

তিনি বলেন, আমরা এই মাস থেকে গভর্নেন্সে কঠোর হওয়া শুরু করেছি। নির্বাচনের পর তা আরও জোরদার করা হবে। বিনা কারণে সরকারের যে বদনামগুলো হয় তা থেকে আমরা বেরিয়ে আসছি। গুটিকয়েক লোকের জন্য ক্যাপিটাল মার্কেট বা মানি মার্কেটের দুর্নাম হবে, সেই দিন শেষ।

শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম বলেন, আজ যারা পুরস্কার পেলেন তাদের প্রতি আবারও শুভেচ্ছা রইল। আর যারা জুরি বোর্ডে কাজ করেছেন, কষ্ট করেছেন তাদের প্রতিও অন্তরের অন্তস্তল থেকে কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি।

সভাপতির বক্তব্যে সিএমএসএফ চেয়ারম্যান নজিবুর রহমান বলেন, আমরা সিএমএসএফ এবং সিএমজেএফের আন্তরিক প্রচেষ্টার ফল আজকের এই অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠান। আজকের দিনটি উদযাপনের দিন। যারা তিনটি পুরস্কার পেলেন, তারা তাদের নিজস্ব প্রচেষ্টা ও নিজস্ব যোগ্যতায় পেয়েছেন। জুরি বোর্ড অত্যন্ত বিচক্ষণতার সঙ্গে রিপোর্টগুলো যাচাই-বাছাই করেছে। আগামীতে ৯টি পুরস্কার দেওয়ার জন্য সিএমএসএফের বোর্ড অব গভর্নেন্সও চিন্তা করেছিল। তবে এবার ৩টি দিয়েই আমরা শুরু করেছি। আগামীতে ৯টি পুরস্কার দেওয়া হবে।

তিনি বলেন, সিএমএসএফ সম্প্রতি ইউরোপে একটি ট্রেড ও ইনভেস্টমেন্ট সেমিনারে গিয়েছিলাম। সেখানে জার্মান ফ্রান্স ও বেলজিয়ামের উদ্যোক্তারা আমাদের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। সম্প্রতি বেলজিয়াম থেকে একজন উদ্যোক্তা সিএমএসএফ পরিদর্শনে এসেছিলেন। আমরা আশা করছি আগামীতে আরও অনেক উদ্যোক্তা আসবেন।

এবার ইলেকট্রনিক মিডিয়া ক্যাটাগরিতে প্রথম পুরস্কার পেয়েছেন বাংলাভিশনের জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক গোলাম ময়নুল আহসান। অনলাইন মিডিয়া ক্যাটাগরিতে প্রথম পুরস্কার পেয়েছেন অনলাইন নিউজ পোর্টাল অর্থসংবাদ ডটকমের জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক এসএম জাকির হোসেন। প্রিন্ট মিডিয়া ক্যাটাগরিতে প্রথম পুরস্কার পেয়েছেন দৈনিক প্রথম আলোর বিশেষ প্রতিনিধি ফখরুল ইসলাম হারুন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন বিএসইসি কমিশনার ড. শেখ শামসুদ্দিন আহমেদ, স্বাগত বক্তব্য দেন সিএমএসএফের বোর্ড অব গভর্নেন্সের সদস্য ও জাতীয় প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শ্যামল দত্ত, কী নোট স্পিকার হিসেবে বক্তব্য দেন সিএমজেএফ সভাপতি জিয়াউর রহমান। এছাড়া সিএমজেএফের সাধারণ সম্পাদক আবু আলীসহ পুঁজিবাজারের বিভিন্ন অংশীজন উপস্থিত ছিলেন।

এসআই/এসএসএইচ