• 15 Jun, 2024

নির্বাচনের আগে আমরা ঝামেলায় পড়তে যাচ্ছি : বিএসইসি চেয়ারম্যান

নির্বাচনের আগে আমরা ঝামেলায় পড়তে যাচ্ছি : বিএসইসি চেয়ারম্যান

বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী-রুবাইয়াতুল ইসলাম বলেছেন, এখনো দেশের ১ শতাংশ মানুষ পুঁজিবাজার বোঝে না। সিদ্ধান্ত নেয় এমন কিছু লোকও মার্কেট বোঝে না। এটা একটা দেশের জন্য বিরাট সমস্যা।

তিনি বলেন, সব ভুল ত্রুটি শেষে গিয়ে দোষ হয় প্রধানমন্ত্রীর এবং তার সরকারের তারপর আমাদের। আমরা কিন্তু ফাইন্যান্সিয়াল লিটারেসি নিয়ে প্রথম থেকে কাজ করি। দেশের ভেতর সকল বিভাগে করেছি। এখন জেলায় জেলায় কাজ করছি।

রোববার (৮ অক্টোবর) সিডিবিএল ও সিসিবিএলের যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত ‘বিশ্ব বিনিয়োগ সপ্তাহ-২০২৩’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

বিএসইসির চেয়ারম্যান বলেন, বিদেশিদের আকৃষ্ট করার জন্য আমরা কান্ট্রি ব্র্যান্ডিং করছি। দেশ নিয়ে যত নেগেটিভ পারসেপশন রয়েছে, তা দূর করছি। বাংলাদেশের সঠিক তথ্যগুলো তুলে ধরছি। বাংলাদেশকে নিয়ে যত ধরনের প্রোপাগান্ডা হয়, বিদেশে অবস্থানরত বাংলাদেশিদের কাছে তুলে ধরছি। তাদের তথ্য দিয়ে বিনিয়োগের উৎসাহিত করছি।

অধ্যাপক শিবলী- রুবাইয়াতুল ইসলাম বলেন, পুঁজিবাজার একটি স্পর্শকাতর জায়গা। টাকা আয় করার জন্য অনেকে ফেসবুক ও ইউটিউবে মিথ্যা তথ্য প্রচার করেন। নির্বাচনের আগে আমরা ঝামেলায় পড়তে যাচ্ছি। কারণ নির্বাচনে অনেকের স্বার্থ রয়েছে। তারা বাজারেও অস্থিরতা তৈরি করতে চায়।

বিএসইসি চেয়ারম্যান বলেন, পুঁজিবাজারে আমরা সুস্থ ও সুন্দরভাবে কাজ করতে চাই। বিএসইসি কমিশনাররা প্রাইভেট কোম্পানির মতো কাজ করে। ওনারা দিন রাত কাজ করেন। শতশত কাজের পরও প্রতিদিন সকালে ও রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে অনেক ভয় লাগে। কাল আবার মার্কেট কেমন হবে, সেসব নিয়ে চিন্তায় থাকতে হয়। এটার কারণ সোশ্যাল মিডিয়া। আমাদের সবচেয়ে অসুবিধায় ফেলে ফেসবুক ও ইউটিউবে প্রচার করা মিথ্যা তথ্য। অনেক ভিউ হয়, তারা ভিউ বাড়িয়ে লাখ লাখ টাকা আয় করতে চায়। মানুষ এগুলো পড়েও বেশি। এর ফলে বাজারে অস্থিরতা তৈরি হয়।

তিনি বলেন, মিথ্যা ও প্যানিক নিউজ হচ্ছে আমাদের প্রধান সমস্যা। আমাদের সবাইকে সম্মিলিত ভাবে মিথ্যা নিউজ যারা দিচ্ছে তাদের প্রতিহত করতে হবে। এটা নিয়ে আপনাদের একসঙ্গে কাজ করতে হবে। আমরা বাজার ঠিক করে সামনের দিকে এগিয়ে যেতে চাই। তবে অস্থিরতা শুরু হলে মানুষ টাকা নিয়ে চলে যাবে।

বিএসইসি চেয়ারম্যান বলেন, সোশ্যাল মিডিয়ার মিথ্যা প্রচারণার কারণে ভিউ থেকে অনেকে বিপুল পরিমাণ আয় করে। এই ভিউকে কেন্দ্র করেই পুঁজিবাজার নিয়ে প্যানিক সৃষ্টিকারী সংবাদ প্রচার করে আসছে অনেকে। পুঁজিবাজারে ইথিকস প্রিন্সিপাল নিয়ে যারা কাজ করে তাদের সংবাদ খুব বেশি চলে না। আগামী ৭ দিন পর মার্কেটে এটা হয়ে যাবে ওটা হয়ে যাবে এমন সংবাদ প্রচার করা হয়। যার ফলে বিনিয়োগকারীদের মধ্যে উদ্বেগ কাজ করে।

তিনি বলেন, বর্তমান কমিশন দায়িত্ব নেওয়ার পর গত তিন বছর কোভিড-১৯, রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ, এখন আবার শুরু হয়েছে ইসরায়েল-ফিলিস্তিন যুদ্ধ, এটা কতদিন চলবে জানি না। এভাবে একটার পর একটা ঝামেলার মধ্যে দিয়েই আমাদের দিন যাচ্ছে। যারা আনইথিক্যাল নিউজ প্রচার করে তাদের আপনারা পরিহার করুন।