• 21 Jul, 2024

মিরনজিল্লা সিটি কলোনীতে ৪০০ বছর ধরে বসবাসরতদের স্থায়ী বন্দোবস্তসহ ক্ষতিপূরণের দাবী হিন্দু পরিষদের

মিরনজিল্লা সিটি কলোনীতে ৪০০ বছর ধরে বসবাসরতদের স্থায়ী বন্দোবস্তসহ ক্ষতিপূরণের দাবী হিন্দু পরিষদের

মিরনজিল্লা সিটি কলোনী, বংশাল ঢাকায় বাংলাদেশ হিন্দু পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির নেতৃত্বে ঢাকার বংশাল থানাধীন মিরনজিল্লা সিটি কলোনীতে বংশপরম্পরায় ৪০০ বছর ধরে বসবাসরত অবহেলিত হিন্দু পল্লী জনগোষ্ঠীদের উচ্ছেদ সম্পূর্ণ বন্ধ,

 শতশত বছরের আশ্রয় ভূমির স্থায়ী বন্দোবস্তো'সহ ক্ষতিগ্রস্থদের ক্ষতিপূরণের দাবীতে আজ ১৪ জুন ২০২৪ খ্রিঃ তারিখ শুক্রবার সকাল ১২.০০ ঘটিকায় রাজধানীর বংশাল থানার মিরনজিল্লা সিটি কলোনীতে এ অবস্থান ও বিক্ষোভ কর্মসূচী  পালন করেন বাংলাদেশ হিন্দু পরিষদ ।
 
বাংলাদেশ হিন্দু পরিষদের মাননীয় সভাপতি দীপংকর শিকদার দীপুর সভাপতিত্বে উক্ত কর্মসূচীতে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সিনিয়র সহ-সভাপতি অনুপ কুমার দত্ত, এ্যাড. গৌরাঙ্গ মন্ডল, কেন্দ্রীয় মুখপাত্র সাজন কুমার মিশ্র, সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. সুমন কুমার রায়, সাংগঠনিক সম্পাদক দেবাশিস সাহা, যুগ্মসাধারণ সম্পাদক অ্যাড. দুর্জয় দে সঞ্জয়, অ্যাড. বাসুদেব গুহ, যুব পরিষদ নির্বাহী সভাপতি অমিত বর্মন, সাংগঠনিক সম্পাদক স্বপন কুমার শিপু, বাংলাদেশ হিন্দু ছাত্র পরিষদ'সহ মিরনজিল্লা সিটি কলোনীর সাধারণ জনগণ অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন।
 
সভাপতি দীপংকর শিকদার দীপু তাঁর বিবৃতিতে জানান "বাংলাদেশ নামক অসাম্প্রদায়িক রাষ্ট্রে একদল কুচক্রী মহলের ইন্দনে যেভাবে সংখ্যালঘুদের উপর যেভাবে নির্যাতন, নিপীড়ন বেড়েছে তা যে কোন অবস্থার জন্য হুমকীস্বরূপ। দেশের সংখ্যালঘুদের দেয়ালে পিঠ ঠেকে গিয়াছে, একজন সংখ্যালঘু হিসেবে আর সইতে পারছি না। যদির মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, কেউ যেন সংখ্যালঘু মনে নিজেদের ছোট না করেন, কিন্তু অপ্রিয় হলেও সত্যি যে, আমাদের উপর নির্যাতন নিপিড়ন পাকিস্থানেও হয় কিনা জানতে ইচ্ছে করে। তাই অবিলম্বে ৪০০ বছর ধরে বসবাসরত মিরনজল্লা সিটি কলোনীর সম্পত্তি ভোগ দখলকারীদের নামে চিরস্থায়ী বন্দোবস্ত প্রদানের দাবী জানাচ্ছি।
 
কেন্দ্রীয় মুখপাত্র সাজন কুমার মিশ্র বলেন, মিরনজিল্লা সিটি কলোনীতে বসবাসরত হিন্দু জনগোষ্ঠীর শেষ আশ্রয়স্থলের উপর উচ্ছেদ অভিযানের তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। বংশপরম্পরা ৪০০ বছর ধরে সিটি কলোনীর জনগোষ্ঠী তাদের পরিবার পরিজন নিয়ে বসবাস করে আসছে, তাদের আবসস্থলের উপর সিটিকর্পোরেশনের উচ্ছেদ অভিযান কোন ভাবেই কাম্য হতে পারে না। সরকারের প্রতি অনুরোধ অনতিবিলম্বে হিন্দু জনগোষ্ঠীর উপর এই ধরণের উচ্ছেদ সম্পূর্ণ বন্ধ, শতশত বছরের আশ্রয় স্থায়ী বন্দোবস্তু'সহ ক্ষতিগ্রস্থদের ক্ষতিপূরণের জোর দাবী জানাচ্ছি।
 
সাধারণ সম্পাদক সুমন কুমার রায় বলেন, মিরনজিল্লা সিটি কলোনীতে বসবাসরত হিন্দু জনগোষ্ঠীর শেষ আশ্রয়স্থলের উপর উচ্ছেদ অভিযানের তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। সরকারী প্রতিনিধি কর্তৃক বংশপরম্পরা ৪০০ বছর ধরে বসবাসরত দেশের জনগোষ্ঠীদের উচ্ছেদ অভিযান কোন স্বাধীন রাষ্ট্রে হয় বলে আমার জানা নেই। এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। একই সাথে অনতিবিলম্বে উচ্ছেদ অভিযান সম্পূর্ণ বন্ধ, শতশত বছরের আশ্রয় ভূমির স্থায়ী বন্দোবস্তো'সহ ক্ষতিগ্রস্থদের ক্ষতিপূরণের জোর দাবী জানাচ্ছি।হরিজন সম্প্রদায়ের অধিকার প্রতিষ্ঠায় যদি রক্ত দিতে হয় আমরা রক্ত দেওয়ার জন্য প্রস্তুত।হরিজন সম্প্রদায়ের অধিকার প্রতিষ্ঠা না হওয়া পর্যন্ত আমাদের আন্দোলন চলবে,আমাদের সনাতনী অধিকার আদায়ে আর এক চুলও ছাড় দেওয়া হবে না।
 
উপস্থিত অন্যান্য বক্তাগণ অনতিবিলম্বে তাদের জমি তাদের নামে স্থায়ী বন্দোবস্তের মাধ্যমে ভবিষ্যতে যেন এধরণের পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে না হয় তার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণে সরকারের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছে।