• 22 May, 2024

লুক্সেমবার্গের জালে রোনালদোহীন পর্তুগালের ৯ গোল

লুক্সেমবার্গের জালে রোনালদোহীন পর্তুগালের ৯ গোল

ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের বাছাইপর্বের ম্যাচে বড় জয় পেয়েছে সাবেক চ্যাম্পিয়ন পর্তুগাল। তবে আগের দুই ম্যাচে হলুদ কার্ড দেখায় লুক্সেমবার্গের বিপক্ষে ম্যাচটিতে ছিলেন না দলের প্রধান তারকা ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো।

তাই প্রতিপক্ষকে গোলবন্যার ম্যাচে স্কোরবোর্ড কিংবা মাঠেও উপস্থিতি ছিল না বিশ্বের অন্যতম সেরা এই তারকা। ৬ ফুটবলারের গোল পাওয়ার ম্যাচে পর্তুগাল লুক্সেমবার্গকে ৯-০ ব্যবধানে উড়িয়ে দিয়েছে।

ইউরোজয়ী দলটির হয়ে এদিন (সোমবার) গনসালো রামোস, দিয়েগো জোতা ও রামোস দুটি করে গোল করেছেন। কার্ডো হোর্তা, ব্রুনো ফার্নান্দেজ ও জোয়াও ফেলিক্স করেছেন ১টি করে গোল। তবে বড় জয়ের ম্যাচে গোলের হ্যাটট্রিক পাননি কেউ। যদিও দুই গোলের পাশাপাশি ফার্নান্দেজ অবশ্য অ্যাসিস্টের হ্যাটট্রিক করেছেন।

 

এদিন ম্যাচের মাত্র ১৭ মিনিটেই লিড পেয়ে যায় পর্তুগাল। প্রথমে গোলটি আসে ইনাসিওর হেডে। এর পরের দুটি গোল আসে রামোসের সফল লক্ষ্যভেদে। রাফায়েল লিয়াওয়ের অ্যাসিস্টে ৩৩ মিনিটে করা রামোস দ্বিতীয় গোলটি দুর্দান্ত ফিনিশিংয়ে করেন। বিরতির আগেই পর্তুগাল পেয়ে যায় চতুর্থ গোলও। এবারও ইনাসিওর হেড, ফার্নান্দেজের ক্রসে পাওয়া গোলের পর পর্তুগাল ৪-০ ব্যবধান নিয়ে বিরতিতে যায়।

আগেই নাস্তানাবুদ হওয়া লুক্সেমবার্গের জালে আরও বল জড়ানো তখন সময়েরই ব্যাপার। তবে দ্বিতীয়ার্ধে নেমে পর্তুগালের গোল পেতে সময় লাগে ১২ মিনিট। দারুণভাবে সাজানো এক দলীয় আক্রমণে ৫৭ মিনিটে গোলটি করেন জোতা। ঠিক ১০ মিনিট পর লক্ষ্যভেদ করেন হোর্তা। জোতার পাস থেকে ওয়ান টাচ ফিনিশিংয়ে ব্যবধান ৬-০ করেন। এরপর যথাক্রমে একে একে গোলের পাল্লা ভারি করেন জোতা, ফার্নান্দেজ ও ফেলিক্স।


 

এর মাধ্যমে পর্তুগিজরা ইউরো ২০২৪–এর বাছাইপর্বে এখন পর্যন্ত অপরাজিতই থাকল। যেখানে রোনালদোর দলটি প্রতিপক্ষের জালে ২৪ বার বল জড়িয়েছে। বিপরীতে এক গোলও হজম করেনি তারা। পরের ম্যাচে তাদের প্রতিপক্ষ স্লোভাকিয়া, এই ম্যাচ জিতলেই তাদের ইউরোতে খেলা নিশ্চিত হয়ে যেতে পারে।

এই ম্যাচে দলে না থাকা রোনালদোর দারুণ রেকর্ড আছে লুক্সেমবার্গের বিপক্ষে। এই দলের বিপক্ষে তিনি ১১ ম্যাচে করেছেন ১১ গোলে। সবশেষ খেলা ম্যাচটিতেও সিআরসেভেন জোড়া গোল করেছিলেন।