• 25 Apr, 2024

বিশ্বকাপ দলে নিজেকেও ‘অটো চয়েজ’ দেখছেন না রোহিত

বিশ্বকাপ দলে নিজেকেও ‘অটো চয়েজ’ দেখছেন না রোহিত

দীর্ঘ সময় ধরে কোনো শিরোপা জিততে পারেনি ভারত। নকআউটে গিয়ে বারবার স্বপ্নভঙ্গ হয়েছে। ভারতীয় দল নিয়ে অনেক প্রশ্ন উঠেছে। সেই সব প্রশ্নের জবাব ঘরের মাঠের আসন্ন ওয়ানডে বিশ্বকাপে দিতে চায় রোহিত শর্মার দল।

লা লিগা ইএ স্পোর্টসে একটি প্রচারমূলক ইভেন্টে ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর রোহিত শর্মা গণমাধ্যমে বিশ্বকাপ নিয়ে খোলাখুলি কথা বলেছেন। বিশ্বকাপের আগে দল নির্বাচন নিয়ে সতর্ক রোহিত। কোনো তাড়াহুড়ো করতে চাইছেন না তিনি। কারণ, সামনেই এশিয়া কাপ। সেখানে ক্রিকেটারদের দেখে নিতে চাইছেন তিনি। তার জন্য ক্রিকেটারদের কঠিন পরীক্ষার সামনে ফেলতে চাইছেন তিনি।

রোহিতের মতে, সমস্যার মধ্যেই কোনো ক্রিকেটারের আসল প্রতিভা বেরিয়ে আসে। সেটাই দেখতে চাইছেন তিনি। বিশ্বকাপের দল নিয়ে রোহিত বলেন, ‘আমাদের সামনে অনেক নাম রয়েছে। দেখতে হবে কাদের নিলে দলে ভারসাম্য রাখা যাবে। তবে বিশ্বকাপের আগে এশিয়া কাপ আছে। সেখানে ক্রিকেটারদের দেখে নেওয়া যাবে।’

দীর্ঘ শিরোপাখরা কাটাতে মরিয়া টিম ইন্ডিয়া কাপ্তান। রোহিত বলেন, ‘আমরা বিশ্বকাপ জিততে চাই। তবে তার সঙ্গেই বেশ কয়েকটি প্রশ্নের জবাব আমাদের দিতে হবে। আমি চাই ব্যাটাররা কঠিন পরিস্থিতিতে ব্যাট করুক। বোলাররা কঠিন পরিস্থিতিতে বল করুক। তবেই সেরা ক্রিকেটার বাছতে পারব।’

ভারত অধিনায়কের দাবি, ‘কেউই অটোমেটিক ভাবে দলে ঢুকে পড়বে না। এমন কী আমিও নই। কোনো একটি জায়গা কারও জন্য নিশ্চিত নয়। আমরা বলতে পারি না যে, যা কিছু হোক, তুমি এখানেই খেলবে। হ্যাঁ, কিছু খেলোয়াড় জানেন যে, তারা দলে থাকবে। ওয়েস্ট ইন্ডিজে তিনটি ওয়ানডে-তে খেলা কিছু প্লেয়ারকে দেখে নেওয়ার সুযোগ ছিল। এশিয়া কাপেও রয়েছে। সেখানে আরও ভালো প্রতিপক্ষের মুখোমুখি হবো।’

বিশ্বকাপের ঠিক আগে এশিয়া কাপ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা। সেই টুর্নামেন্টে শ্রেয়াস এবং রাহুলকে পাওয়া যাবে কি না, তা নিয়ে সংশয় রয়েছে। রোহিত বলেছেন, ‘শ্রেয়াস এবং কেএল চার মাস ধরে ২২ গজের বাইরে। বড় চোট, তার পর অস্ত্রোপচার। দু'জনেরই অস্ত্রোপচার হয়েছে। আমাকেও একবার অস্ত্রোপচার করতে হয়েছিল এবং আমি জানি, তার পরে কেমন লাগে। এটা সময়টা বেশ কঠিন। আমাদের দেখতে হবে, কী হয়। ওরা সুস্থ হয়ে উঠতে পারে কি না।’

সঙ্গে তিনি যোগ করেছেন, ‘নির্বাচন (সভা) কয়েক দিনের মধ্যে হবে, আমরা কী করতে পারি, তা জানি। তবে সত্যি বলতে, কেউই অটোমেটিক চয়েস নয়। সবাইকেই জায়গা পাওয়ার জন্য লড়াই করতে হবে। সেটা টপ স্পটের জন্যই হোক বা লোয়ার স্পট।’