• 16 Jul, 2024

টিকিট ছাড়া ট্রেনে ওঠা যাত্রীর কাল হলো সিগারেট

টিকিট ছাড়া ট্রেনে ওঠা যাত্রীর কাল হলো সিগারেট

টিকিট ছাড়াই উঠেছেন ট্রেনে। উদ্দেশ্য ছিল বিনা অর্থে চলে যাবেন গন্তব্যে। তবে টিকিট ছাড়া ধরা পড়লে দিতে হবে জরিমানা। সেই ভয়ে শৌচাগারের ভেতর লুকিয়েছিলেন। কিন্তু ট্রেনের ভেতর সিগারেট জ্বালানোর মতো ছোট ভুলে সব পরিকল্পনা পণ্ড হয়ে যায় তার। সঙ্গে পড়ে যান মহাবিপদে।

ভারতের দ্রুতগতির বন্দে ভারত ট্রেনে ঘটেছে এমন ঘটনা।

সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি বৃহস্পতিবার (১০ আগস্ট) এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, তিরুপাতি থেকে অন্ধ্রপ্রদেশগামী বন্দে ভারত ট্রেনে উঠেছিলেন ওই যাত্রী। কিন্তু টিকিট না থাকায় শৌচাগারে গিয়ে লুকান। তবে ওই শৌচাগারের ভেতর সিগারেট খাওয়ার নেশা ওঠে তার। যখন ট্রেনটি মাত্র গুদুর অতিক্রম করে তখনেই সিগারেট জ্বালান তিনি। কিন্তু ওই যাত্রী জানতেন না শৌচাগারের ভেতর ‘ফায়ার অ্যালার্ম’ স্থাপন করা ছিল। তিনি সিগারেটটি ধরানো মাত্র সেই অ্যালার্ম বেজে ওঠে। আর সঙ্গে সঙ্গে ট্রেনের ওই কামড়ার ভেতর স্বয়ংক্রিয় অগ্নিনির্বাপক যন্ত্র কাজ করা শুরু করে এবং কামড়ার ভেতর এরোসল স্প্রে করতে থাকে।

এতে ওই কামড়ার যাত্রীদের মধ্যে চরম আতঙ্ক দেখা দেয়। তারা ট্রেনের গার্ডকে জরুরি ফোনের মাধ্যমে ট্রেন থামাতে বলেন। একটা সময় মানুবুলু স্টেশনের কাছে এসে ট্রেনটি থেমে যায়।

ট্রেন থামার পরপরই রেলওয়ে পুলিশ দ্রুত অগ্নিনির্বাপক যন্ত্র নিয়ে কাজ শুরু করে এবং ট্রেনের শৌচাগারের জানালা ভেঙে ফেলে। তখন তারা সেই যাত্রীকে হাতেনাতে ধরেন। সাধারণ যাত্রীদের মধ্যে আতঙ্ক ও ট্রেন থামাতে বাধ্য করার কারণে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। এমন এলাহি কাণ্ডের পর ট্রেন আবারও চলা শুরু করে।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রকাশিত ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, কামড়ার ভেতর এরোসোল ছিটানো এবং এটির কয়েকটি জানালা ভাঙা। মূলত আতঙ্ক থেকে যাত্রীরা এসব জানালা ভেঙে ফেলেন।

সূত্র: এনডিটিভি