• 02 Mar, 2024

নড়াইলের সেই প্রধান শিক্ষক শেফালী বেগম শিক্ষা অফিসে সংযুক্তির আদেশ পেলো!

নড়াইলের সেই প্রধান শিক্ষক শেফালী বেগম  শিক্ষা অফিসে সংযুক্তির আদেশ পেলো!

স্বেচ্ছাচারিতা, দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগের প্রেক্ষিতে নড়াইলে সেই আলোচিত দক্ষিণ বাগডাঙ্গা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শেফালী বেগমকে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসে সংযুক্তির আদেশ জারি করা হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার (৩১ আগষ্ট) খুলনা বিভাগীয় প্রাথমিক শিক্ষা কার্যালয়ের বিভাগীয় উপ-পরিচালক মোঃ মোসলেম উদ্দিন স্বাক্ষরিত এ আদেশ দেয়া হয়।  

আদেশে বলা হয়, প্রধান শিক্ষক শেফালী বেগম পূনরাদেশ না দেওয়া পর্যন্ত সাময়িকভাবে নড়াইল সদর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসে তিনি কাজ করবেন। এই আদেশে শর্ত হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে তিনি (শেফালী বেগম) মূল কর্মস্থল থেকে বেতন ভাতাদি পাবেন। 

উল্লেখ্য, নড়াইল সদর উপজেলার দক্ষিণ বাগডাঙ্গা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শেফালী খানমের বিরুদ্ধে স্বেচ্ছাচারিতা, দুর্নীতি ও অনিয়মের সংবাদ টেলিভিশনসহ বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় প্রকাশিত হয়। স্কুল পরিচালনা কমিটির সদস্য, অভিভাবকসহ এলাকাবাসী ওই প্রধান শিক্ষককের স্বেচ্ছাচারিতা, দুর্নীতি ও অনিয়মের কারণে বিদ্যালয়ের শিক্ষারমান ও পরিবেশ ধংসের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে গেছে মর্মে জেলা প্রশাসকসহ বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ ও মানববন্ধন করেন।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শেফালী খানমের কারণে বিদ্যালয়ের শিক্ষার মান ও পরিবেশ ধংসের দ্বারপ্রান্তে। সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় হওয়া সত্ত্বেও ছাত্রছাত্রী ভর্তি এবং ছাড়পত্রে ১০০ থেকে ৫০০ করে টাকা নেন তিনি। বিদ্যালয়ের বিভিন্ন পরীক্ষার সময় গাইড বই দেখে ছাত্রছাত্রীদের লেখতে দেয়া হয়। কোমলমতি শিক্ষার্থীদের দিয়ে টয়লেট পরিস্কারসহ ভবনের ভেতর এবং আঙিনা পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন করানো হয়। শিক্ষকদের সঙ্গেও চরম দুর্ব্যবহার করেন প্রধান শিক্ষক শেফালী খানম। এছাড়া প্রতিবছর সব শ্রেণির পুরানো বই বিক্রি করে দেন। কোনো সময় শিক্ষার্থীদের একটি বা দু’টি বই হারিয়ে গেলে তাকে আর কোনো বই দেয়া হয় না।