অকাল প্রয়াণ ‘রূপ কি রানি’ শ্রীদেবীর, শোকস্তব্ধ বলিউড

74

‘খোয়াবো কি শেহজাদি।’ প্রকৃত অর্থেই স্বপ্নের সুন্দরী ছিলেন। তাঁর অভিনয়ে মুগ্ধ হয়েছিল আট থেকে আশি। আচমকা সবাইকে অবাক করে পরলোকে পাড়ি দিলেন সেই শ্রীদেবী। তাঁর আকস্মিক প্রয়াণে শোকের ছায়া বলিউডে।
দুবাইয়ে একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে যোগ দিতে গিয়ে শনিবার মাঝরাতে প্রবল হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হল বলিউড অভিনেত্রী শ্রীদেবীর। ৫৪ বছর বয়সেই আলবিদা জানিয়ে চলে গেলেন তিনি। সেই সময় স্বামী বনি কাপুর এবং ছোট মেয়ে খুশি তাঁর সঙ্গেই ছিলেন। দেওর সঞ্জয় কাপুরই প্রথম মৃত্যুর খবর জানান।
১৯৬৩ সালে জন্ম শ্রীদেবীর। মাত্র চার বছর বয়সে তামিল ছবিতে অভিনয়ে পা রেখেছিলেন। ১৩ বছর বয়সে শিশুশিল্পী হিসাবে বলিউডে অভিনয়ে হাতেখড়ি হয়েছিল তাঁর। তামিল, তেলুগু, হিন্দি, মালায়লম, কন্নড়-সহ একাধিক ভাষার ছবিতে অভিনয় করেছেন তিনি। পাঁচবার ফিল্ম ফেয়ার সম্মানে সম্মানিত হয়েছেন। পেয়েছেন পদ্মশ্রী পুরস্কারও। একসময় নিজের রূপ আর অভিনয় দক্ষতায় বলিউড কাঁপিয়েছেন। সদমা, নাগিনা, চালবাজ, তোফা, খুদাগাওয়া, মিস্টার ইন্ডিয়ার মতো একাধিক জনপ্রিয় ছবি করে হিন্দি চলচিত্র জগতের অন্যতম সেরা অভিনেত্রী হয়ে উঠেছিলেন শ্রীদেবী। শুধু তাই নয়, ৫৪ বছর বয়সেও নিজের গ্ল্যামারে এতটুকু ভাটা পড়তে দেখা যায়নি। ‘ইংলিশ ভিংলিশ’ ছবিতে কামব্যাক করে ফের দর্শকদের মন জয় করেছিলেন। গত বছরই মুক্তি পেয়েছিল ছবি মম। মায়ের চরিত্রে তাঁকে অভিনয় করতে সিনেপ্রেমীদের চোখে জলে ভরেছিল। এদিনও আপামর জনতার চোখে জল। তাঁকে হারানোর শোকে। ভেঙে পড়েছে গোটা বলিউড। অমিতাভ বচ্চন থেকে প্রীতি জিন্টা, সকলেই টুইট করে শোক প্রকাশ করেছেন। কেউ যেন বিশ্বাসই করতে পারছেন না তাঁদের প্রিয় চাঁদনি আর নেই। নিয়তি যেন এমনই হয়। তাই তো হঠাৎই বিদায় নিতে হল শ্রীদেবীকে। সিনেমা জগতে নক্ষত্র পতন হল। যে শূন্যস্থান হয়তো অপূরণীয়ই রয়ে যাবে।