নড়াইলে গৃহবধুকে শ্বাসরোধে হত্যার অভিযোগ

246

নড়াইলকণ্ঠ : নড়াইলের বামনহাট গ্রামে নাসরিন (২০) নামের এক গৃহবধুকে শ্বসরোধে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। শুক্রবার (৭ জুলাই) সকালে গৃহবধুর শ্বশুর বাড়িতে এ ঘটনা ঘটেছে। এদিকে ঘটনার পর থেকে স্বামী বাবুল ফকির পলাতক রয়েছে। এ ঘটনায় পরিবারের পক্ষ থেকে হত্যা মামলা করা প্রস্তুতি চলছে।
এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, কৃষক বাবুল ফকির প্রায়ই স্ত্রীকে নির্যাতন করতো,বৃহস্পতিবার রাতে ও নির্যাতনের ঘটনা ঘটে। শুক্রবার সকালে ঘরের দরজা খোলা অবস্থায় কাউকে দেখতে না পেয়ে ঘরে ঢুকে নিহত নাসরিনেরে লাশ ঘরের আড়ার সাথে ঝুলতে দেখে তারা পুলিশে খবর দেয়। তবে বাবুল কে সে সময় পাওয়া যায়নি।
পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে,বামনহাট গ্রামের মৃত শফিয়ার ফকিরের ছেলে বাবুল ফকিরের ছেলের সাথে দেড় বছর আগে বিয়ে হয় পার্শ্ববর্তী মাগুরা জেলার শালিখা উপজেলার আদাডাঙ্গা গ্রামের গোলাম সরোয়ার এর মেয়ে নাসরিন এর সাথে। বিয়ের পর থেকেই স্বামী বাবুল নানাভাবে শ্বশুর বাড়ি থেকে সুবিধা নেবার জন্য স্ত্রীকে মারধোর করতো,কয়েক দফা টাকা ও দিয়েছে তারা।
নিহতের বড়বোন ইয়াসমীন জানান,আমার বাবার বাড়িতে আমার সামনে কয়েকদিন বাবুল আমার বোনকে গলা টিপে ধরেছে,বাবুলের অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে আমার বোন কয়েকবার আমার বাড়িতে চলে এসেছে। বাবুলের আবদার মেটাতে বোনের সুখের জন্যআমি কয়েক দফা কয়েক হাজার টাকা ও দিয়েছি ।আমার বোনকে হত্যা করা হয়েছে।
ঘটনা তদন্তে দ্বায়িত্বপ্রাপ্ত নড়াইল সদর থানার এ এস আই ওহিদুর রহমান জানান,লাশ ঘরে ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া গেছে,তবে বিষয়টি হত্যা নাকি আতœহত্যা তা বের করার জন্য লাশের ময়নাতদন্ত করা হচ্ছে আপাতত অপমৃত্যু মামলা হয়েছে, রিপোর্ট পাবার পর আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।