রাজশাহী স্টেশনে গার্ড-ক্লিনার মিলে পেটালেন যাত্রীকে

24

ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা পদ্মা এক্সপ্রেস ট্রেনের এক যাত্রীকে পিটিয়েছেন স্টেশনের ক্লিনার। এতে শিমুল ইমলাম (৩৫) নামের ওই যাত্রী রক্তাক্ত আহত হন। পরে রেলওয়ে থানা পুলিশ তাকে উদ্ধার করেন। রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশনে মঙ্গলবার (২৪ জানুয়ারি) সকাল ৮টার দিকে এই ঘটনা ঘটে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ঢাকা থেকে রাজশাহীগামী পদ্মা এক্সপ্রেস ট্রেনের লবি থেকে ছিনতাইকারীরা কুমকুম নামের এক যাত্রীর ভ্যানিটি ব্যাগ ছিনিয়ে নেয়। ঘটনাটি ঘটে রাজশাহীর সারদাহ রোড স্টেশনে। ছিনতাইয়ের ঘটনার পরে যাত্রীরা ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন। এরপর ওই ট্রেনের দায়িত্বে থাকা গার্ড মনির হোসেন এবং অ্যাটেনডেন্ট তরিকুল ইসলামের সঙ্গে বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন ট্রেনের যাত্রীরা। এ সময় একজন ক্লিনারকে ধরে চড়-থাপ্পড় মারার অভিযোগও পাওয়া যায়। এ ঘটনার পর ট্রেনটি রাজশাহী স্টেশনে থামলে ক্লিনার লাল মিয়াসহ কয়েকজন মিলে শিমুল ইসলাম নামে এক যাত্রীকে মারপিট করেন। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

শিমুল অভিযোগ করে বলেন, ‘ট্রেনে ছিনতাইকারী চক্রের সঙ্গে জড়িত ক্লিনার, গার্ড এবং অ্যাটেনডেন্টরা। তা না হলে এতো লোক হুট করে প্রথম শ্রেণির বগিতে ওঠার কথা নয়। এর প্রতিবাদ করায় গার্ড মনিরসহ কয়েকজন ক্লিনার আমাকে ধরে পিটিয়েছে। আমি এর বিচার চাই।’

মঙ্গলবার সকাল ১১টার দিকে রেলওয়ে জিআরপি থানার এসআই সাহাদৎ হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, আমরা অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি দেখা হচ্ছে।

রেলওয়ে জিআরপি থানার এসআই সাহাদৎ হোসেন জানান, এটা একটা ভুল বোঝাবোঝি। আমাদের কেউ লিখিত অভিযোগ করেননি। তবে যাত্রী শিমুল বলে গেছেন তিনি লিখিত অভিযোগ করবেন। একইভাবে ট্রেনের ক্লিনার লাল মিয়াও অভিযোগ করবেন জানিয়েছেন। তারা অভিযোগ করলে বিষয়টি তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশনের ম্যানেজার আবদুর করিম জানান, রাজশাহীর সারদাহ রোড স্টেশনে ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটে। ট্রেনটি রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশনে আসলে সকাল সাড়ে ৭টার দিকে বাকবিতণ্ডার ঘটনা ঘটে। আমরা সিসিটিভি ফুটেজ দেখছি। জিআরপি থানায় কথা বলেছি। বিষয়টি গুরুত্বসহকারে দেখা হচ্ছে।