নড়াইলে গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী পিঠা উৎসব

27

নড়াইলে চিতই পিঠা, ভাপা পিঠা, তাল পিঠা, সেমাই পিঠা, পাকান পিঠা, রসে ভিজা পিঠা, পায়েসসহ ২০ প্রকার পিঠা নিয়ে অনুষ্ঠিত হলো গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী পিঠা উৎসব। নড়াইলে নবান্ন উৎসব উপলক্ষ্যে পিঠা উৎসব গ্রামীণ লোক নৃত্য ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

নন্দন কানন শিশু কিশোর বিকাশ ও সাংস্কৃতি চর্চা কেন্দ্র নড়াইলের আয়োজনে পৌর এলাকার ধোপাখোলা এলাকায় শনিবার দিনব্যাপী এসব কর্মসূচি পালিত হয়।

নন্দন কানন শিশু কিশোর বিকাশ ও সাংস্কৃতি চর্চা কেন্দ্রের সভাপতি সুভাষ বিশ্বাসের সভাপতি বক্তব্য রাখেন জেলা সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি মলয় কুমার নুন্ডু, নন্দন কানন শিশু কিশোর বিকাশ ও সাংস্কৃতি চর্চা কেন্দ্রের সাধারণ সম্পাদক ডা. মায়া রানী বিশ্বাস, নড়াইল প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শামীমূল ইসলাম টুলু প্রমুখ। পরে উপস্থিত সবাইকে পিঠা দিয়ে আপ্যায়ন করা হয়।

উৎসবে পিঠা নিয়ে আসা মিতু বিশ্বাস বলেন, আমি নিজের হাতে ঢেঁকিতে দেশি ধানের চাল তৈরি করে সেই চাল দিয়ে রসে ভেজা চিতই পিঠা তৈরি করেছি। নিজের হাতে তৈরি করা পিঠা আমি উৎসবে নিয়ে এসেছি।

পিঠা উৎসবে আসা দর্শনার্থী কৃষ্ণা রানী বলেন, নবান্নের উৎসব উপলক্ষ্যে পিঠা উৎসবের আয়োজন করা হয়েছে। এখানে আসতে পেরে খুবই আনন্দিত আমি।

নন্দন কানন শিশু কিশোর বিকাশ ও সাংস্কৃতি চর্চা কেন্দ্রের সাধারণ সম্পাদক ডা. মায়া রানী বিশ্বাস বলেন, গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী একটি উৎসব এই পিঠা উৎসব। পিঠা উৎসব আমাদের প্রাণের উৎসব। আগামী প্রজন্মকে পিঠা-পুলির সাথে পরিচয় করিয়ে দিতেই আমাদের এ আয়োজন। নন্দন কানন শিশুদের নিয়ে কাজ করে থাকে। আমরা দ্বিতীয় বছরের মত এ উৎসবের আয়োজন করেছি। আগামীতে এ ধারা অব্যাহত রাখার কথা জানান তিনি।