ঝিনাইদহ শৈলকুপায় উপজেলা আনসার ভিডিপির সমাবেশ

17

আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা মাদক চোরাচালান জঙ্গিদমনে পুলিশকে সহায়তার দীপ্ত শপথ অবদানের স্বীকৃতি পেলেন ৩০ সদস্য

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি : ঝিনাইদহ জেলার শৈলকুপা উপজেলা আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনী আয়োজিত উপজেলা সমাবেশে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা, মাদক, চোরাচালান ও জঙ্গি দমনে পুলিশকে সহায়তার দীপ্ত শপথ ঘোষণা করা হয়েছে। সোমবার সকালে শৈলকুপা উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) মোঃ বনি আমিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন ঝিনাইদহ জেলা আনসার ও ভিডিপি জেলা কমান্ড্যান্ট মোঃ আশিকউজ্জামান। সমাবেশে শৈলকুপা থানার অফিসার ইনচাজ মোঃ আমিনুল ইসলাম, উপজেলা আনসার ভিডিপি অফিসার হাবিবুর রহমান ও উপজেলা প্রশিক্ষক মোসাঃ রোকেয়া খাতুন বিশেষ অতিথি ছিলেন। এতে আনসার ও ভিডিপির শৈলকুপা উপজেলার বিভিন্ন পর্যায়ের ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড দলনেতা, দলনেত্রী, আনসার কমান্ডার ও সদস্যরা অংশ নেন। সমাবেশে প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সংবাদকর্মী উপস্থিৎ ছিলেন।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ও সভাপতি তাদের বক্তব্যে বলেন, ১৯৪৮ সালের ১২ ফেব্রুয়ারি আনসার বাহিনী প্রতিষ্ঠা লাভের পর স্বাধীনতাযুদ্ধে প্রথম মুজিবনগর সরকারকে আনসার প্লাটুন কমান্ডার ইয়াদ আলীর নেতৃত্বে ১২ জন আনসার সদস্য গার্ড অব অনার প্রদান করেন। বর্তমাণে এ বাহিনীর সদস্যরা বিমান বন্দর, সরকারী-বেসরকারী ব্যাংক, বীমা ও বিভিন্ন সরকারী-বেসরকারী সংস্থায় আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় সফলতার সাথে কাজ করে আইন-শৃংখলা রক্ষা ও সামাজিক উন্নয়নে ভ’মিকা রাখছে। তারা দেশে পার্বত্য এলাকায় ১৫টি ব্যাটালিয়ন বিভিন্ন অপারেশন কার্যক্রমে ব্যাটালিয়ন আনসার সেনাবাহিনীর সাথে সমন্বয়পূর্বক কাজ করে যাচ্ছে। তারা দেশের আইন শৃঙ্খলা রক্ষা, মাদক, চোরাচালান, জঙ্গি দমনে পুলিশ বাহিনীকে সরাসরি সহায়তা প্রদান করে। এছাড়াও এ বাহিনীর সদস্যরা এ উদ্দেশ্যে র‌্যাব, ডিজিএফআই-এ নিয়োজিত থেকে সুনামের সাথে দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন। বর্তমানে দেশে ২টি মহিলা ব্যাটালিয়ন ও ১ টি আনসার গার্ড ব্যাটালিয়নসহ মোট ৪০ টি ব্যাটালিয়নে প্রায় ২৩ হাজার সদস্য নিয়োজিত রয়েছেন বলে জানান।

তারা বলেন, সরকার কর্তৃক বিভিন্নসময়ে নির্ধারিত নির্বাচনকালীন দায়িত্ব পালন ও শ্বারদীয় দূর্গাপুজায় নিরাপত্তার দায়িত্ব পালনে এ বাহিনীর ভ’মিকা প্রশংসিত হয়েছে দেশ ও বিদেশে। করোনাকালে টিকাদান কর্মসূচি, বৃক্ষরোপন কর্মসূচি, উপকূলীয় এলাকায় দূর্যোগ মোকাবেলায় স্থানিয় প্রশাসনকে সহায়তাদানসহ বিভিন্ন কাজে সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে উপজেলার বিভিন্ন জনবহুলস্থানে সচেতনতামুলক লিফলেট বিতরণ, লকডাউন কার্যক্রম বাস্তবায়নে স্থানীয় প্রশাসনকে সাহায্য প্রদান, অসহায় সদস্যদের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ কার্যক্রম বাস্তবায়ন করছে।

এ সমাবেশ অংশগ্রহণকারী ২০০ জন সদস্যের মধ্যে বিভিন্ন দাপ্তরিক ও আভিযানিক কাজের অবদান রাখায় দুজন চৌকস আনসার সদস্যকে একটি করে বাইসাইকেল পুরস্কার প্রদান করা হয়। এছাড়াও আরো ৩০ জন আনসার ও ভিডিপিসদস্যকে অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ অন্যান্য বিভিন্ন ধরণের পুরস্কার প্রদান করা হয়।