বৈধ ২৩৫ মানি চেঞ্জারের তালিকা প্রকাশ

11

অবৈধ মানি চেঞ্জাররা কারসাজি করে নগদ ডলারের দাম বাড়াচ্ছে। হুন্ডির সঙ্গেও জড়িয়ে পড়ছে এসব প্রতিষ্ঠান। এমন পরিস্থিতিতে আর্থিক ও আইনগত ঝুঁকি এড়াতে সারা দেশের বৈধ ২৩৫টি মানি চেঞ্জারের হালনাগাদ তালিকা প্রকাশ করেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

বাংলাদেশ ব্যাংক তাদের ওয়েবসাইটে জরুরি বিজ্ঞপ্তি দিয়ে অবৈধ মানি এক্সচেঞ্জ সম্পর্কে জন সাধারণকে সতর্ক করার জন্য এ তালিকা প্রকাশ করেছে।

এতে বলা হয়েছে, সাম্প্রতিক সময়ে বিভিন্ন ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান অবৈধ মানি চেঞ্জার ব্যবসার সঙ্গে জড়িত রয়েছে এমন বিভিন্ন সংবাদ গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে। বাংলাদেশ ব্যাংক বৈধ মানি এক্সচেঞ্জের অনুমতি প্রদান করে।

সচেতনতার লক্ষ্যে অনুমোদিত মানি চেঞ্জার প্রতিষ্ঠানের হালনাগাদ তালিকা বাংলাদেশ ব্যাংকের ওয়েবসাইট (https://www.bb.org.bd/mediaroom/notice/moneychangers.pdf) দেওয়া হয়েছে।

এ অবস্থায়, সম্ভাব্য আর্থিক ও আইনগত ঝুঁকি এড়ানোর লক্ষ্যে অবৈধ মানি চেঞ্জারের সঙ্গে যেকোনো প্রকার লেনদেন, দোকান ভাড়া চুক্তি সম্পাদন ইত্যাদি না করতে বলেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

 

এর আগে ডলারের সংকটকে পুঁজি করে দেশের খোলাবাজারে নগদ ডলার ১২০ টাকায় উঠায় মানি চেঞ্জাররা। বাজার অস্থিতিশীল করার পেছনে অবৈধ মানি চেঞ্জাররা জড়িত বলে অভিযোগ উঠে। পরে খোলাবাজারে অভিযান চালায় বাংলাদেশ ব্যাংকসহ সরকারের গোয়েন্দা ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। অভিযানে ডলারের কারসাজির অভিযোগে গত ২৭ ও ২৮ সেপ্টেম্বর লাইসেন্সবিহীন সাতটি প্রতিষ্ঠান সিলগালা করে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। এর আগে ডলার লেনদেনে নানা অনিয়মের অভিযোগে ৪২টি কোম্পানিকে শোকজ নোটিশ দেওয়া হয়। পাঁচটি প্রতিষ্ঠানের লাইসেন্সও স্থগিত করা হয়। এমন পরিস্থিতিতে প্রতারণা ঠেকাতে বৈধ মানি চেঞ্জারের তালিকা প্রকাশ করল বাংলাদেশ ব্যাংক।