টুইটার থেকে চাকরিচ্যুত হয়ে কী বলছেন কর্মীরা

16

গত শুক্রবার থেকেই টুইটার থেকে কর্মী ছাঁটাই শুরু করেছেন প্রতিষ্ঠানটি নতুন মালিক ও সিইও ইলন মাস্ক। কর্মীদের তিনি ইমেইলের মাধ্যমে কাজ থেকে বরখাস্ত করার নোটিশ দিয়েছেন।

অবশ্যই এ নিয়ে টুইটার জানিয়েছে, কোম্পানিকে সুস্থভাবে পরিচালনা করতে বিশ্বব্যাপী কর্মী ছাঁটাইয়ের কঠিন কাজ শুরু হয়েছে। এই খবর সামনে আসার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই একাধিক ভারতীয় কর্মী নিজেদের চাকরি থেকে বরখাস্ত হওয়ার পেয়েছেন। এই সব কর্মীরে টুইটারের ভারতীয় অফিসে কর্মরত ছিলেন।

ছাঁটাই হওয়ার পরে সকলেই নিজেদের ভালো অভিজ্ঞতার জন্য কোম্পানিকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। কারও গলায় ছিল বিষাদের সুর। আবার কেউ কেউ টুইট বার্তায় প্রাক্তন কর্মীদের ভবিষ্যতের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

স্মিতা মৃণাল গুপ্তা নামের এক সাবেক টুইটার কর্মী এক টুইট বার্তায় বলেন, টুইটারে আমার সাত বছরের জার্নি শেষ হলো। এটি আমার কাছে চাকরির চেয়ে বড় কিছু ছিল। অনেকটা বাসার মতো। সহকর্মীদের সঙ্গে দারুণ একটি সময় কাটিয়েছি।

ইয়াশ আগারওয়াল নামের আরেক কর্মী বলেন, মাত্রই ছাঁটাইয়ের বার্তা পেয়েছি। তবে টুইটারের দিনগুলো আমার কাছে সেরা সময় হিসেবে থাকবে।

অদিতি শার্নাল নামের একজন লেখেন, আমিও বাদ পরেছি। যদিও বিষয় হৃদয় বিদারক তবুও টুইটার আমার কাছে বিশেষ কিছু।

এদিকে সম্প্রতি ইলন মাস্ক টুইটার কর্মীদের নির্দিষ্ট সময়ে কাজ শেষ করার জন্য অতিরিক্ত কাজের নির্দেশ দিয়েছেন। কোম্পানির কয়েকজন কর্মীকে প্রতিদিন ১২ ঘণ্টা কাজ করার নির্দেশ দিয়েছেন। একই সঙ্গেই সপ্তাহে ৭ দিন কাজ করার কথাও বলা হয়েছে কর্মীদের।

উল্লেখ্য ৪৪০০ কোটি মার্কিন ডলারে টুইটার কিনে নিয়েছিলেন ইলন মাস্ক। ইতিমধ্যেই টুইটার বোর্ডের সব সদস্যদের ছাঁটাই করে নিজেই কোম্পানির সিইও পদে বসেছেন তিনি।