নড়াইল শহরের সৌন্দর্যবর্ধনে কাজ করছেন মাশরাফী

33

নড়াইল শহরের সৌন্দর্যবর্ধনসহ যোগাযোগ, স্বাস্থ্যসেবা, বিনোদন খাতের উন্নয়নে বিভিন্ন প্রকল্প বাস্তবায়নে কাজ চলছে বলে জানিয়েছেন নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা।

শুক্রবার (২৩ সেপ্টেম্বর) সকালে নড়াইল শহরের প্রাণকেন্দ্রে পৌরসভা পুকুরের সৌন্দর্যবর্ধন প্রকল্পের নামফলক উন্মোচনকালে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা জানান।

বৈশ্বিক মহামারি করোনা ও অর্থনৈতিক মন্দার কারণে এসব প্রকল্প বাস্তবায়ন বিলম্বিত হলেও সংকট কাটিয়ে পর্যায়ক্রমে দ্রুততম সময়ে সবই দৃশ্যমান হবে বলে তিনি আশাবাদ প্রকাশ করেন।

কালিদাস টাঙ্কি নামে নড়াইল শহরের শতবর্ষী এ পুকুরটির অস্তিত্ব রক্ষায় ছয় কোটি টাকা বায়ে এর চার পাড় ঘিরে ওয়াকওয়ে নির্মাণসহ এটির সৌন্দর্যবর্ধনে প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে। মাশরাফী এদিন বেলা ১১টার দিকে পুকুরের উত্তর পাড়ে স্থাপিত ‘লাল মিয়া পুকুর বিউটিফিকেশন’ নামে এ প্রকল্পের নামফলক উন্মোচন করেন। ফলক উন্মোচন শেষে এটির সাফল্য কামনা করে মোনাজাত করা হয়।

ভিত্তিপ্রস্তর শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মাশরাফী তার উদ্যোগে নড়াইলের উন্নয়নে গৃহীত বিভিন্ন প্রকল্পের অগ্রগতি তুলে ধরে বলেন, ‘অনেক স্মৃতিবিজড়িত পুকুরটির মতো হাটবাড়িয়া পার্ক নিয়েও আমাদের উন্নয়ন পরিকল্পনা রয়েছে। যার মধ্য দিয়ে এগুলো সংরক্ষণের পাশাপাশি মানুষের বিনোদনের মাধ্যম হবে।’

 

যোগাযোগ খাতের উন্নয়নে নেয়া নানা পদক্ষেপ প্রসঙ্গে মাশরাফী বলেন, অর্থ মন্ত্রণালয় থেকে অর্থ ছাড় সাপেক্ষে সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে দ্রুততম সময়ে নড়াইল শহরের মধ্য দিয়ে বহুল প্রত্যাশিত ফোর লেন সড়কের বাস্তবায়ন হবে।

স্বাস্থ্যসেবার উন্নয়নে নানা উদ্যোগ তুলে ধরে মাশরাফী বলেন, ১০টি আইসিইউ বেডবিশিষ্ট নির্মাণাধীন ২৫০ শয্যার হাসপাতালও আগামী বছরের জুলাইয়ের মধ্যে নির্মাণ সম্পন্ন হতে যাচ্ছে। এ সময় তিনি নড়াইলকে ঘিরে নেয়া তার সকল উন্নয়ন কর্মকাণ্ড বাস্তবায়নে এলাকাবাসীর সহযোগিতা কামনা করেন।

এ সময় নড়াইল জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট সুবাস বোস, পৌর মেয়র আঞ্জুমান আরা, প্যানেল মেয়র কাজী জহিরুল হকসহ বিশিষ্ট ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।