সাংবাদিক ও পুলিশ চরিত্রে দর্শক মাতাচ্ছেন রওনক

51

ছোট ও বড় পর্দার জনপ্রিয় অভিনেতা রওনক হাসান। ক্যারিয়ারের দারুণ সময় কাটাচ্ছেন তিনি। বর্তমানে দেশের প্রেক্ষাগৃহে চলছে তার অভিনীত দুটি সিনেমা। এগুলো হলো দীপঙ্কর দীপন পরিচালিত ‘অপারেশন সুন্দরবন’ ও সাইদুল ইসলাম রানার ‘বীরত্ব’।

শুক্রবার (২৩ সেপ্টেম্বর) ৩৫টি হলে মুক্তি পেয়েছে ‘অপারেশন সুন্দরবন’। যার মধ্যে রয়েছে স্টার সিনেপ্লেক্সের সবগুলো শাখায় দৈনিক ২১টি। এই সিনেমার জন্য বেশ ইতিবাচক সাড়া পাচ্ছেন রওনক। এতে তার করা সাংবাদিক পলাশের চরিত্রটির দর্শকের তুমুল প্রশংসা কুড়াচ্ছে। সিনেমায় শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত রওনকের উপস্থিতি দর্শকদের আবেগে ভাসাচ্ছে, ভাবাচ্ছে, মনে প্রশ্ন তৈরি করছে।

সুন্দরবনের ডাকাতরা যে সাংবাদিকদেরও আটকে রেখে রকম অত্যাচার করেছে তা এই চরিত্রে নিপুণভাবে ফুটিয়ে তুলেছেন রওনক। বিশেষ করে জঙ্গলে সংবাদ সংগ্রহ করতে গিয়ে দস্যুতের হাতে বন্দী থাকা অবস্থায় তার চেহারার এক্সপ্রেশন ও মেকআপে মুগ্ধ দর্শক। এই দৃশ্যে আবদ্ধ ঘরে আটক অভিনেতার সাপের সঙ্গে লড়া, ওপর থেকে সবকিছু ভেঙে পড়াসহ পুরো সময়টায় সাবলীল অভিনয় দর্শকের মন কেড়েছে। পুরস্কার হিসেবে হল থেকে বেরিয়ে দর্শক হাততাতি আর ভালোবাসাও ছুঁড়ে দিচ্ছেন রওনকের উদ্দেশে।

এদিকে, গত ১৬ সেপ্টেম্বর মুক্তি পাওয়া সাইদুল ইসলাম রানার ‘বীরত্ব’ সিনেমায়ও রওনকের অভিনয় দর্শকদের মন ছুঁয়ে যাচ্ছে। এই সিনেমায় পুলিশের এএসপি রায়হান চরিত্রে অভিনয় করেছেন এই রওনক। এতে তার অভিনয় দর্শকদের বাড়তি আনন্দের যোগান দিয়েছে। সিনেমায় নায়িকা সালওয়ার সঙ্গে তার দৃশ্যগুলোও দর্শক উপভোগ করছেন।

সিনেমা দুটিতে অভিনয় প্রসঙ্গে রওনক হাসান বলেন, “আমি সবসময় চেষ্টা করি যে কোনো সিনেমায় যতটুকুই জায়গা পাই সেটাকে যথাযথভাবে ফুটিয়ে ‍তুলতে। এই দুটি সিনেমার ক্ষেত্রেও তাই হয়েছে। চরিত্রের ভেতরে ঢুকে গিয়ে অভিনয় করার চেষ্টা করেছি। ভালো লাগছে দিন শেষে দর্শকের পতিক্রিয়া দেখে। এ পর্যন্ত অনেকের কাছ থেকেই সিনেমা দুটির জন্য প্রশংসা পেয়েছি। ভালোলাগার কথা শুনিছি। তবে ‘অপারেশন সুন্দরবন’-এ আমার উপস্থিতি, অভিনয় নাকি সবাইকে বাড়তি ভালোলাগা দিচ্ছে।”

উল্লেখ্য, বর্তমানে মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে রওনক অভিনীত অমিতাভ রেজার ওয়েব সিরিজ ‘বোধ’, পঙ্কজ পালিতের ‘একটি না বলা গল্প’, দীপংকর দীপনের ‘অন্তর্জাল’, আকরাম খানের ‘নকশি কাঁথার জমিন’সহ বেশ কিছু সিনেমা।