উন্মুক্ত হলো আইফোন ১৪ প্রো ও প্রো-ম্যাক্স, কী আছে ফোনগুলোতে?

21

সর্বকালের সেরা আপগ্রেড নিয়ে বাজারে এসেছে আইফোন ১৪ সিরিজ। বর্তমানে প্রো, প্রো-ম্যাক্স, প্লাস এবং রেগুলার- এই চারটি ফোন রয়েছে নতুন এই ফ্ল্যাগশিপ সিরিজটিতে। এগুলোর মধ্যে আইফোন ১৪ এবং আইফোন ১৪ প্লাস ফোন দুটি আগেই উন্মুক্ত করেছে প্রতিষ্ঠানটি।

তবে এই সিরিজের সবচেয়ে চমৎকার হলো আইফোন ১৪ প্রো এবং ১৪ প্রো-ম্যাক্স। এই ফোন দুটিতেই পিল শেপড নচ ডিজাইন দেওয়া হয়েছে। অ্যাপল থাকে এটিকে ‘ডায়নামিক আইল্যান্ড’ বলা হয়েছে। ভারতীয় মুদ্রায় আইফোন ১৪ প্রো’র দাম ১ লাখ ২৯ হাজার ৯০০ রুপি থেকে। আইফোন ১৪ প্রো ম্যাক্সের-এর দাম শুরু হচ্ছে ১ লাখ ৩৯ হাজার ৯০০ রুপি থেকে।

ফোন দুটিতে রয়েছে অ্যাপলের লেটেস্ট এ১৬ বায়োনিক চিপ, স্যাটেলাইট কানেক্টিভিটি সাপোর্ট। সব মিলিয়ে আগের প্রো মডেলগুলোর তুলনায় আইফোন ১৪ প্রো মডেলগুলো অনেক আপডেট।

ফিচার্স ও স্পেসিফিকেশনস

ডিজাইন– আইফোন ১৪ প্রো মডেলগুলোতে ডায়নামিক আইল্যান্ড বা পিল শেপড নচ দেওয়া হয়েছে। রিয়ার প্যানেল ডিজাইন একই থাকছে আইফোন ১৩ প্রো সিরিজের মতোই। হাই-অ্যান্ড সেন্সর সহযোগে ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা সিস্টেম থাকছে দুটি ফোনেই।

ডিসপ্লে– আইফোন ১৪ প্রো ফোনে একটি ৬.১ ইঞ্চির লিকুইড রেটিনা ডিসপ্লে দেওয়া হয়েছে। অন্যদিকে আইফোন ১৪ প্রো ম্যাক্সে রয়েছে বেশকিছুটা বড় ৬.৭ ইঞ্চির ডিসপ্লে। যার ব্রাইটনেস ১৬০০ নিটস, ডলবি ভিসন সাপোর্ট এবং এইচডিআর১০ সাপোর্ট করে। অলওয়েজ অন ডিসপ্লে, প্রোমোশন ১২০এইচজেড রিফ্রেশ রেট এবং ওয়াইড কালার গ্যামুট সাপোর্ট করে।

প্রসেসর– এই সিরিজের প্রো মডেলটিতে এ১৬বায়োনিক চিপসেট দেওয়া হয়েছে, যা 4এনএম ম্যানুফ্যাকচারিং প্রসেস ব্যবহার করে এবং ৬ কোর সিপিইউ দ্বারা নির্মিত।

ক্যামেরা– নতুন আইফোন ১৪ প্রো এবং ১৪ প্রো-ম্যাক্স ফোন দুটিতে ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ দেওয়া হয়েছে, যার প্রাইমারি সেন্সর ৪৮ মেগা পিক্সেল। এই প্রথম বার আইফোনে এমন ক্যামেরা দেওয়া হলো। সেকেন্ডারি সেন্সর হিসেবে ফোন দুটিতে রয়েছে ১২ মেগা পিক্সেল আলট্রাওয়াইড অ্যাঙ্গেল ক্যামেরা এবং ১২ মেগা পিক্সেল টেলিফটো লেন্স। যা জুম লেন্স হিসেবে কাজ করবে।

ব্যাটারি– অ্যাপল বলছে, আইফোন ১৪ প্রো মডেলগুলো একবার চার্জ দিলেই এক দিনের ব্যাটারি ব্যাকআপ পাওয়া যাবে। তারা আরও দাবি করছে, আগেরগুলোর তুলনায় নতুন প্রো মডেলগুলোর ব্যাটারি পারফরম্যান্স অনেক ভালো।