নড়াইলে অগ্নিকান্ডে ঘুমন্ত শিশুর মৃত্যু

28

নড়াইলের লোহাগড়া উপজেরার দেবীগ্রামে বসতঘরে অগ্নিকান্ডে ৪ বছরে এক কন্যা শিশুর করুণ মৃত্যু হয়েছে। শনিবার দুপুরে ওই শিশুটির ময়নাতদন্ত নড়াইল সদর হাসপাতালে সম্পন্ন হয়েছে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার বিকেলে দেবী গ্রামের নারী ইউপি সদস্য চিনি বেগমের বসতবাড়িতে বিদ্যুতের শর্ট সার্কিট থেকে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। আগুনের লেলিহান শিখা কিছুক্ষণের মধ্যে বসত ঘরটিতে ছড়িয়ে পড়ে। এ সময় ইউপি সদস্যের ৪ বছরের নাতনি তামান্না ঘরে ঘুমিয়ে ছিল। দ্রুত পুরো ঘরটিতে আগুন ছড়িয়ে পড়ায় শিশুটিকে কেউ উদ্ধার করতে পারেনি।

শিশুটির পিতার নাম সৈয়দ সোহেল এবং মাতার নাম অঞ্জনা বেগম। দাদী চিনি বেগম ৪নং নোয়াগ্রাম ইউনিয়নের সংরক্ষিত ওয়ার্ডের একজন নারী সদস্য।

দেবীগ্রামের বাসিন্দা আরিফুজ্জামান মুকুল বলেন, বিদ্যুতের শর্ট সার্কিট থেকে আগুন ইউপি সদস্য চিনি বেগমের বসত ঘরটিতে আগুন ধরে যায়। প্রচন্ড তাপদাহের কারনে আগুন মুহুর্তের মধ্যেই পুরো ঘরে ছড়িয়ে পড়ে। যার কারণে শিশুটিকে কেউ উদ্ধার করতে পারেনি। আগুন নেভানোর পর শিশুর পুড়ে যাওয়া বিভৎস্য মৃতদেহটি উদ্ধার করে কলার পাতার ওপর রাখা হয়। শিশুটির মৃত্যুর ঘটনাটি আমাদের এলাকাবাসীকে শোকের সাগরে ভাসিয়ে দিয়েছে।

নোয়াগ্রাম ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের সদস্য হায়াতুজ্জামান বলেন, শিশুটি বেঁচে থাকতো আর বাড়িঘরের সব মালামালা পুড়ে গেলেও দুঃখ ছিলো না। আমাদের পুরো এলাকাবাসী আজ শোকাহত। শিশুটির মৃত্যুর খবরটি পুলিশ প্রশাসনকে অবিহত করা হয়। পরে পুলিশ এসে শিশুটি ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতালে পাঠিয়ে দেয়। শনিবার দুপুরে ময়নাতদন্ত শেষে দাফন করা হয়েছে। পরিবারটির পুনর্বাসনের জন্য জেলা প্রশাসন ও নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য মাশরাফী বিন মোর্ত্তজার আন্তরিক সহযোগিতা কামনা করছি।