গোপালগঞ্জে এক ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে সরকারি অর্থ আত্মসাৎ সহ নানা অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে

18

কে এম সাইফুর রহমান (বিশেষ প্রতিনিধি) : গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার ১নং জালালাবাদ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এফ এম মারুফ রেজার বিরুদ্ধে সরকারি অর্থ আত্মসাৎ সহ নানা অনিয়মের অভিযোগ এনেছেন একই ইউনিয়নের ৭ ইউপি সদস্য।

লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানাযায়, সদর উপজেলার জালালাবাদ ইউপি চেয়ারম্যান এফ এম মারুফ রেজা ইউনিয়ন পরিষদ উন্নয়ন সহায়তা কর্মসূচির ৮ লাখ ২৯ হাজার টাকা বিতরণের জন্য প্রতিটি সেলাই মেশিন প্রায় ১০ হাজার টাকা দরে ক্রয় করার কথা থাকলেও তিনি প্রতিটি ৪ হাজার টাকা দরে নিম্নমানের সেলাই মেশিন ক্রয় করেছেন। যাহা বরাদ্দকৃত ৪ লাখ ৫৫ হাজার টাকার ৪০% কাজ করে বাকী টাকা আত্মসাৎ করেছেন। ইউনিয়নের স্থায়ী বাসিন্দাদের হোল্ডিং নম্বর দেওয়ার কথা বলে প্রতিটি হোল্ডিং প্রতি ৩ শত টাকা করে প্রায় ১০ লাখ টাকা আত্মসাৎ করেছেন। নিজ দলীয় লোক বসিয়ে প্রতি জন্মনিবন্ধন তুলতে ৩শত থেকে ১ হাজার টাকা পর্যন্ত গ্রহন করছেন। কাজের বিনিময়ে টাকা (কাবিটা) এবং কাজের বিনিময়ে খাদ্য (কাবিখা) প্রকল্পের মালোপাড়া সমির মাঝির বাড়ী হতে নজরুল শেখের বাড়ী ১ লাখ টাকা ও চর ধলইতলা জামে মসজিদ হতে হেমায়েত সরদারের বাড়ী পর্যন্ত ২ লাখ টাকার কাজ না করে সরকারি অর্থ আত্মসাৎ করেছেন। আশ্রয়ন প্রকল্পের ঘর দেওয়ার কথা বলে ৩০ টি পরিবারের নিকট থেকে ১৫ হাজার টাকা করে ৪ লাখ ৫০ হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন বলে লিখিত অভিযোগে উল্লেখ করেছেন ওই ৭ ইউপি সদস্যরা।

এ বিষয়ে ১নং জালালাবাদ ইউপি চেয়ারম্যান এফ এম মারুফ রেজা জানান, আমার বিরুদ্ধে যে অভিযোগ করা হয়েছে তা মিথ্যা ও ভিত্তিহীন।

গোপালগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মহসিন উদ্দিন এবিষয়ে জানান, জালালাবাদ ইউপিৎ চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে সরকারি অর্থ আত্মসাৎ সহ নানা অনিয়ম উল্লেখ করে ৭জন ইউপি সদস্যের লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি তদন্ত করে সত্যতা পেলে আইনী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।