মিস্ত্রির ধর্ষণের শিকার এতিম শিশু

20

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার পাগলায় ছয় বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে বিল্লাল (৫৫) নামে এক মিস্ত্রিকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করছে স্থানীয়রা। বিল্লাল প্রায়ই শিশুটিকে ধর্ষণ করতেন।

রোববার (২১ আগস্ট) রাত আটটার দিকে স্থানীয়দের সহায়তায় বিল্লালকে আটক করলে তিনি জনসম্মুখে ধর্ষণের কথা স্বীকার করেন।

বিল্লাল ফতুল্লা মডেল থানার পাগলা পূর্ব রসুলপুরের বাসিন্দা। তিনি পেশায় একজন রাজমিস্ত্রি।

স্থানীয়রা জানায়, ভুক্তভোগী শিশুটির বাবা মারা গেলে অভাবের তাড়নায় তার মা শিশুটিকে পালক রেখে রমজান মাসে বিদেশে চলে যান। শিশুটি সাত রমজান থেকে তার পালিত মায়ের নিকট থাকতে শুরু করে। সে বাসাতেই বিল্লাল সপরিবারে ভাড়ায় থাকতেন।

শিশুটির পালিত মা জানান, রমজান মাস থেকে শিশুটিকে ধর্ষণ করে আসছিল বিল্লাল। তিনি যখন বাসায় থাকতেন না বা বাসার কাজে ব্যস্ত থাকতেন তখন বিল্লাল শিশুটিকে চকলেট বা মজা খাওয়ানোর লোভ দেখিয়ে তার রুমে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ করতেন। কোরবানী ঈদের দু’দিন পর শিশুটিকে বাসায় রেখে তিনি (পালিত মা) ডাক্তারের নিকট গেলে বিল্লাল শিশু মেয়েটিকে ডেকে তার রুমে নিয়ে যায়। বেশ কিছুক্ষণ পর শিশুটিকে গোসল করিয়ে রুম থেকে বের করে দেয়। এ বিষয়টি পাশের এক ভাড়াটিয়া দেখে ফেলে তাকে জানায়। পরে সে শিশু মেয়েটিকে জিজ্ঞেস করলে সব বলে সে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ রিজাউল হক দিপু জানান, ধর্ষণের ঘটনাটি বেশ কয়েক দিন আগের। সংবাদ পাওয়ার পরপর ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছি। বিষয়টি প্রমানিত হওয়ায় ধর্ষককে আটক করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।