সম্পত্তির জন্য ভাইকে মেরে মরদেহ লুকিয়ে রাখেন ড্রাম ট্রাকে

34

কুমিল্লায় কথা-কাটাকাটির জেরে সৎভাইকে হত্যার দায়ে মো. রাসেলকে (৩০) গ্রেপ্তার করেছে দাউদকান্দি থানা পুলিশ। সোমবার (২৫ জুলাই) সকালে নিজ বাড়ি থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তার মো. রাসেল চান্দিনা উপজেলার মাধাইয়া কুটুম্বপুর এলাকার মোসলেম উদ্দিনের আগের সংসারের ছেলে। নিহত মাঈন উদ্দিন (২০) রাসেলের সৎভাই।

সোমবার (২৫ জুলাই) বিকেলে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন দাউদকান্দি থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম।

তিনি জানান, রোববার (২৪ জুলাই) রাত ৮টার দিকে দাউদকান্দি উপজেলার মেঘনা-গোমতী সেতুর পূর্ব পাশের বালুমহাল এলাকায় ড্রাম ট্রাকের ভেতর এক যুবকের মরদেহ দেখে পুলিশে খবর দেয় স্থানীয়রা। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মরদেহটি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। পরে তার পরিচয় শনাক্ত করে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়। এ ঘটনায় নিহত মাঈন উদ্দিনের মা বাদী হয়ে দাউদকান্দি থানায় হত্যা মামলা করেন।

পরে রহস্য উদঘাটনে মাঠে নামে দাউদকান্দি থানা পুলিশ। তথ্য-প্রযুক্তির সহায়তায় রাসেলকে শনাক্ত করে তাকে তার নিজ বাড়ি কুটুম্বপুর থেকে গ্রেপ্তার করে। জিজ্ঞাসাবাদে রাসেল তার সৎভাই মাঈন উদ্দিনকে হত্যার কথা স্বীকার করেন। পরে তাকে আদালতে পাঠালে ১৬৪ ধারায় হত্যার কথা স্বীকার করে জবানবন্দি দেন।

ওসি আরও জানান, স্থানীয় এক ব্যবসায়ীর বালুমহালে ড্রাম ট্রাকের চালক হিসেবে কাজ করতেন রাসেল। সেই ট্রাকের সহকারী ছিলেন তার সৎভাই মাঈন উদ্দিন। বাবার সম্পত্তি নিয়ে উভয়ের মধ্যে আগে থেকেই দ্বন্দ্ব ছিল। রোববার দুই ভাইয়ের মধ্যে ফের কথা-কাটাকাটি হয়।

এতে বড় ভাই রাসেল ক্ষিপ্ত হয়ে ছোট ভাই মাঈন উদ্দিনকে হত্যা করে এবং ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে মরদেহ ওই ড্রাম টাকে রেখে পালিয়ে বাড়িতে চলে যান রাসেল।