এখনো বেতন পরিশোধ করেনি ৪৩ শতাংশ কারখানা

10

ঈদুল আজহার ছুটির আগেই শ্রমিকদের বেতন ও বোনাস পরিশোধের নির্দেশ দিয়েছিল সরকার। কিন্তু সরকারি সেই নির্দেশ মানেনি ৪৩ শতাংশ কারখানা। এতে ঈদের আগে বেতন-বোনাস না পেয়ে চরম বিপাকে পড়েছেন এসব কারখানার কয়েক হাজার শ্রমিক।

বাংলাদেশ শিল্পাঞ্চল পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার ঈদের আগের শেষ কর্মদিবস পর্যন্ত ৪৩ শতাংশেরও বেশি কারখানা শ্রমিকদের বেতন পরিশোধ করেনি। এছাড়া বোনাসও দেয়নি ১৫ শতাংশ কারখানা।


শিল্প পুলিশের তথ্য মতে, ঈদের আগের শেষ কার্মদিবস বৃহস্পতিবার (৭ জুলাই) বিকেল ৫টা পর্যন্ত ৮ হাজার ৯৯৫টি কারখানার মধ্যে ৫ হাজার ৮৮টি কারখানা বেতন পরিশোধ করেছে। যা শতাংশের হিসেবে দাঁড়ায় ৫৬ দশমিক ৫৬ শতাংশ। বাকি ৩ হাজার ৯০৭টি (৪৩ দশমিক ৪৪ শতাংশ) কারখানা এখন বেতন পরিশোধ করেনি। এছাড়া বোনাস দেয়নি ১৫ শতাংশ কারখানা।

আরও পড়ুন : ‘টিকে থাকা কঠিন’ বলছেন ব্যবসায়ীরা

নাম প্রকাশ না করার শর্তে শিল্পাঞ্চলের এক কর্মকর্তা ঢাকা পোস্টকে বলেন, বিকেল ৫টা পর্যন্ত মোট ৫৬ দশমিক ৫৬ শতাংশ কারখানা শ্রমিকের বেতন পরিশোধ করার তথ্য আমরা পেয়েছি। বেশ কিছু কারখানায় এখনো বেতন পরিশোধ করা হচ্ছে। রাত ৮টার পর আজকের মোট তথ্য জানা যাবে।


মোট কারখানার (৮ হাজার ৯৯৫টি) মধ্যে তৈরি পোশাক মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএর সদস্যভুক্ত কারখানার সংখ্যা ২ হাজার ২৪টি। এসব প্রতিষ্ঠান এরই মধ্যে শতভাগ বেতন ও বোনাস পরিশোধ করেছে বলে দাবি করেছে বিজিএমইএ।

আরও পড়ুন : ছুটির পর কারখানা খোলা, আসেননি কোনো শ্রমিক

এ বিষয়ে বিজিএমইএর পরিচালক মহিউদ্দিন রুবেল ঢাকা পোস্টকে বলেন, আমার জানা মতে বিজিএমইএর সদস্যভুক্ত সব কারখানা শ্রমিকদের বেতন-বোনাস দিয়েছে। ৮টি কারখানায় বেতন বাকি ছিল, সেগুলোতে বেতন ভাতা পরিশোধের চেষ্টা করা হচ্ছে।