পুলিশকে জনবান্ধব করতে নতুন আইন

10

বাংলাদেশ পুলিশের নতুন আইন প্রণয়নের কথা জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান।

রোববার (২৬ জুন) একাদশ জাতীয় সংসদের অষ্টাদশ অধিবেশনে প্রশ্নোত্তর পর্বে জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য ফখরুল ইমামের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন। স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে প্রশ্নোত্তর টেবিলে ‍উত্থাপিত হয়।

আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, সময়ের চাহিদার পরিপ্রেক্ষিতে পুলিশকে আরও জনবান্ধব ও সেবামুখী প্রতিষ্ঠানে পরিণত করাসহ যুগোপযোগী এবং বর্তমান অবস্থার সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে নতুন করে বাংলাদেশ পুলিশ আইন (খসড়া) প্রণয়নের কাজ চলমান রয়েছে।

তিনি বলেন, খসড়া পুলিশ আইনে পুলিশকে আরো জনবান্ধব করে বাংলাদেশ পুলিশকে একটি সেবাধর্মী প্রতিষ্ঠানে পরিণত করার উপর বিশেষ গুরুত্বারোপসহ বিভিন্ন ধারা উপধারা সংযোজন করা হয়েছে।

এর আগে ফখরুল ইমাম তার প্রশ্নে পুলিশের বিশৃঙ্খলা ঠেকাতে ও স্বচ্ছতা নিশ্চিত করতে অবিলম্বে একটি পূর্ণাঙ্গ আইন প্রণয়ন করা হবে কি না, তা জানতে চান।

জবাবে মন্ত্রী বলেন, পুলিশ একটি শৃঙ্খলা বাহিনী। তবে পেশাগত দায়িত্ব পালনের ক্ষেত্রে কোনো পুলিশ সদস্য কর্তৃক গাফিলতি বা আইনের ব্যত্যয় ঘটলে তার বিরুদ্ধে প্রচলিত বিধি অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হয়। পুলিশ বাহিনীতে বিশঙ্খলা সৃষ্টির কোনো অবকাশ নেই। এ সময় তিনি পুলিশের অভ্যন্তরীণ শৃঙ্খলা রক্ষায় কার্যকর থাকা বিভিন্ন আইন ও বিধির কথা তুলে ধরেন।

মন্ত্রী পুলিশের বিদ্যমান আইন ও বিধানগুলোর কথা তুলে ধরে নতুন আইন প্রণয়নের কথা জানান।