পুঁজিবাজারে টানা পাঁচ কার্যদিবস উত্থান

2

সপ্তাহের চতুর্থ কর্মদিবস বুধবারও (১ জুন) সূচকের উত্থানের মধ্য দিয়ে দেশের পুঁজিবাজারে লেনদেন হয়েছে। এদিন ব্যাংক খাতের শেয়ারের দাম কমলেও বেড়েছে বিমা, আর্থিক প্রতিষ্ঠান, বস্ত্র, প্রকৌশল, বিদ্যুৎ ও জ্বালানি এবং ওষুধ ও রসায়ন খাতের কোম্পানির শেয়ারের দাম।

এসব খাতসহ মোট ১২ খাতের প্রায় শতভাগ কোম্পানির শেয়ারের দাম বাড়ায় এদিন প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচক বেড়েছে ৪০ পয়েন্ট। অপর পুঁজিবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সূচক বেড়েছে ১৫৪ পয়েন্ট।


সূচকের পাশাপাশি বেড়েছে লেনদেন ও অধিকাংশ কোম্পানির শেয়ারের দাম। এর ফলে গত ২৫ মে (বুধবার) থেকে শুরু হওয়া দরপতনের পর থেকে আজ পর্যন্ত পুঁজিবাজারে উত্থান হলো।

ডিএসইর তথ্য মতে, বুধবার বাজারে ৩৭৯টি প্রতিষ্ঠানের ২০ কোটি ৬৫ লাখ ৭ হাজার ৫৬৮টি শেয়ার ও ইউনিট কেনাবেচা হয়েছে। এর মধ্যে ২৮১টি কোম্পানির শেয়ারের দাম বেড়েছে, কমেছে ৫১টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ৪৭টির।

অধিকাংশ কোম্পানির শেয়ারের দাম বাড়ার দিন ডিএসইর প্রধান সূচক আগের দিনের চেয়ে ৪০ দশমিক ৩১ পয়েন্ট বেড়ে ৬ হাজার ৪৩৩ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। অপর দুই সূচকের মধ্যে ডিএসইএক্স আগের দিনের চেয়ে বেড়েছে ৯ পয়েন্ট এবং ডিএস-৩০ সূচক বেড়েছে ৫ দশমিক ৬০ পয়েন্ট।

এদিন ডিএসইতে ৭৪৩ কোটি ১২ লাখ ৫ হাজার টাকার শেয়ার ও ইউনিটের লেনদেন হয়েছে। এর আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ৬৩৭ কোটি ৮৭ লাখ ৬৮ হাজার টাকার শেয়ার। অর্থাৎ আগের দিনের তুলনায় লেনদেন বেড়েছে।


এদিন সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে বেক্সিমকো লিমিটেডের শেয়ার। এরপর যথাক্রমে লেনদেন হয় আইপিডিসি, ওরিয়ন ফার্মা, জিএসপি ফাইন্যান্স, বিএসসি, বেক্সিমকো ফার্মা, জেনেক্স ইনফোসেস, জেএমআই হসপিটাল, শাইনপুকুর সিরামিক এবং স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড।

দেশের অপর পুঁজিবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ১৫৪ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৮ হাজার ৮২১ পয়েন্টে।

এ বাজারে ১৯৭টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে ১৩৩টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দাম বেড়েছে, কমেছে ৩৮টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ২৬টির। এদিন লেনদেন হয়েছে ১০ কোটি ৬৭ লাখ ২৭ হাজার ২৮৮ টাকা। এর আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ১৭ কোটি ৫৭ লাখ ১১ হাজার ২৫২ টাকা।