ইতালি প্রবাসী নারীদের ঈদ পুর্নমিলনী

9

করোনার বিধিনিষেধের কারণে রোমের প্রবাসী নারীরা গত দুই বছর ঐক্যবদ্ধ হয়ে কোনো অনুষ্ঠানের আয়োজন করতে পারেননি। বর্ষবরণ উৎসব কিংবা জাতীয় দিবসগুলোতে তারা ছিলেন অনেকটাই ঘরবন্দি। তবে কারোনার সংক্রমণ কমে যাওয়ায় বিধিনিষেধ শিথিলের পর এবার ঈদ পুনর্মিলনীতে ইতালির বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার নারীরা উৎসব আনন্দে মেতে ছিলেন।

রোমের স্থানীয় রসই রেস্টুরেন্টের হলরুমে শুক্রবার (১৩ মে) এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে সঞ্চালনা করেন নারীনেত্রী মেহেনাস তাব্বাসুম শেলি।


এসময় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ইতালি আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মাহতাব হোসেন, বিশেষ অতিথি ছিলেন ইতালি আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. আলমগীর হোসেন‌‌সহ রোমের আঞ্চলিক, সামাজিক, রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক ও সাংবাদিক সংগঠনের শীর্ষস্থানীয় নেতারা।

এই পুনর্মিলনী উৎসবে সঞ্চারি সঙ্গীতায়নের শিশু-কিশোররা নৃত্য এবং সঙ্গীত পরিবেশন করেন। এছাড়াও রোমের স্থানীয় কণ্ঠশিল্পী রত্না বসাক ও মাসুদ রানা সঙ্গীত পরিবেশন করেন।

অনুষ্ঠানে নারীনেত্রী‌ জোবাইদা গুলশান আরা, সুলতানা নিগার মিতা, শিল্পী চৌধুরী, সানজিদা বাসের, খুকুমনি, অতশী সাহা,‌ তাহমিনা সুলতানা, আফরোজা আক্তার ডেইজি, কাকন, জোবেদা আক্তার, মুন্নী রওশন আরা, মলিন, আকলিমা আক্তার, লিজা আক্তার, নাবিহা আলী, নুজুবা আলী, দীপা, রিয়াল, শিউলি আক্তার, দিনা ইসলাম, শিল্পী, শারমীন, রুবি, নিপা, মিতা, জুহুরা ইশিতা-সহ আরো অনেকেই উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে বিশেষ সহযোগিতায় ছিলেন আরশী ফ্যাশনের কর্নধার সান্ত সুখি মুন্নী।

এই ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে ইতালির রাজনৈতিক এবং সামাজিক নেতারা নারী নির্যাতন বন্ধে প্রবাসী নারীদের ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান জানান।


রোমের নারীনেত্রীদের আয়োজনে ঈদ পুনর্মিলনীতে উপস্থিত হতে পেরে সবাই বেশ খুশি হয়েছেন। এভাবে ঐক্যবদ্ধ হয়ে ভ্রাতৃত্বের বন্ধনে আবদ্ধ হতে চান তারা।