আইপিএলের পাঁচ ঘটনা : যা এর আগে ঘটেনি

6

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের ১৫তম আসর চলছে। এখনো শেষ হয়নি এবারের মৌসুমের লিগ পর্বের ম্যাচ। তবুও মাঠের ক্রিকেটে বেশকিছু রেকর্ড গড়েছে এবারের আইপিএল, যা এর আগে কখনো ঘটেনি। বলা যায়, ২০০৯-২০২২ আইপিএলে এই প্রথমবার এমন সব ঘটনার সাক্ষী হলো ক্রিকেট সমর্থকরা।

চোখ রাখা যাক এমন পাঁচটি ঘটনায়-

১/ আইপিএল ইতিহাসে এবারই প্রথম মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স কোনো নির্দিষ্টি একটি আসরে (এখন পর্যন্ত) ৯টি ম্যাচ হারে। এর আগে ২০০৯ ও ২০১৮ সালে মোট দুই বার ৮টি করে ম্যাচে পরাজিত হয় মুম্বাই। এবার ব্যর্থতার সেই রেকর্ড ভেঙে দেন রোহিত শর্মারা।

২/ এই প্রথমবার কোনো দল টুর্নামেন্টে নিজেদের প্রথম ৮ ম্যাচে একটানা পরাজিত হয়। মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স এমন হতাশাজনক নজির গড়ে আইপিএল ২০২২-এর প্রথম ৮টি ম্যাচে পরাজিত হয়ে।

৩/ আইপিএলের এক আসরে টানা ১১টি ম্যাচে ম্যান অফ দ্য ম্যাচ ভারতীয় ক্রিকেটাররা। টুর্নামেন্টের ৩৭তম ম্যাচ থেকে ৪৭তম ম্যাচ পর্যন্ত সেরা ক্রিকেটারের পুরস্কার ওঠে যথাক্রমে লোকেশ রাহুল, শিখর ধাওয়ান, রিয়ান পরাগ, উমরান মালিক, কুলদীপ যাদব, ক্রুণাল পান্ডিয়া, রাহুল তেওয়াটিয়া, সূর্যকুমার যাদব, মহসিন খান, রুতুরাজ গায়কোয়াড় ও রিংকু সিংয়ের হাতে।

৪/ প্রথমবার কোনো ভারতীয় পেসার ১৫৭ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টা গতিতে বল করেন। দিল্লি ক্যাপিটালসের বিরুদ্ধে সানরাইজার্স হায়দরাবাদের উমরান মালিক এমন আগুনে গতিতে বল করেন, যা টুর্নামেন্টের ইতিহাসে ভারতীয়দের মধ্যে সর্বোচ্চ।


৫/ এই প্রথমবার পরপর ২টি ম্যাচে কোনো ওপেনার ডায়মন্ড ডাকে সাজঘরে ফেরেন। কলকাতা নাইট রাইডার্সের বিরুদ্ধে লিগের ৫৩তম ম্যাচে লখনৌ সুপার জায়ান্ট অধিনায়ক লোকেশ রাহুল কোনো বল খেলার আগেই রান-আউট হয়ে সাজঘরে ফেরেন। রয়েল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের বিরুদ্ধে ঠিক পরের ম্যাচেই হায়দরাবাদ অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন কোনো বল খেলার আগেই রান-আউট হন।