‘তোমাদের উচিত মুশফিককে নিয়ে নেগেটিভ কথা বলা বন্ধ করা’

11

সম্প্রতি যেন নিজেকে হারিয়ে খুঁজছেন মুশফিকুর রহিম। পরিসংখ্যান আর পারফরম্যান্স কোনটাই তার পক্ষে কথা বলছে না। বিশেষজ্ঞদের চুলচেরা বিশ্লেষণের মধ্য দিয়ে যেতে হচ্ছে অভিজ্ঞ এই ব্যাটসম্যানকে। সমালোচনার কাঠগড়ায় বন্দি এই ৩৪ বছর বয়সী ক্রিকেটারকে ফরম্যাট বেছে খেলার ইঙ্গিত দিয়েছেন খোদ বোর্ড সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। তবে এখনি তেমনটা মনে করছেন না জাতীয় দলের ব্যাটিং পরামর্শক জেমি সিডন্স।

সিডন্সের মতে, মুশফিকের খারাপ সময় যাচ্ছে বটে, তবে সেখান থেকে দ্রুতই ফিরে আসবেন এই উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান। চট্টগ্রামে আজ মঙ্গলবার অনুশীলন শেষ সিডন্স সকলের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন, মুশফিককে নিয়ে নেতিবাচক কথা বলা বন্ধ রাখতে।

সিডন্স বলেন, ‘তোমাদের উচিত নেগেটিভ কথা বলা বন্ধ করা। তাদের ওপর প্রেশার দিও না। তারা এক সিরিজে হতাশ করেছে দেখে চাপ সৃষ্টি করো না, সবসময় তাদের পাশে থাকো যেন তারা সেই চাপটা অনুভব না করে। মুশি দেশের সবচেয়ে সফল টেস্ট ব্যাটার। সে অনেক রান করেছে। তার হয়তো দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের মতো একটা পিরিয়ড এসেছে। তবে আবার রানে ফিরবে সে।’

শেষ ১১ ইনিংসে ফিফটি মোটে ১টি। দক্ষিণ আফ্রিকায় গিয়ে রানের দেখা পাননি। টেস্টে সবশেষ সেঞ্চুরি করেছেন ১৮ ইনিংস আগে। সময়ের হিসেবে পেরিয়েছে ২৫ মাস! আন্তর্জাতিক মঞ্চে সবশেষ ৩১টি ইনিংসে তিন অঙ্ক ছুঁতে পারেননি। তিন ফরম্যাট মিলিয়ে সেঞ্চুরির দেখা পেয়েছেন তাও বছর ছুঁতে চললো। এমন অফ ফর্ম শেষ কবে পার করেছেন তিনি? এজন্যই চারিদিকের সমালোচনা ঘিরে ধরেছে তাকে।

সিডন্স বললেন, ‘সব ব্যাটসম্যানের এই ধাপটা পার করে, যেখানে সে রান পায় না তেমন। তবে সে এখানে গত দুই দিনে যেভাবে ব্যাটিং করছে, আমি নিশ্চিত এই সিরিজে সে রান করবে। আমি ওর ব্যাটিং দেখতে মুখিয়ে রয়েছি। ওর সঙ্গে বেশ কিছু বিষয় নিয়ে কাজ করেছি। আমার মতে, সে ভালো একটি সিরিজ কাটাতে চলেছে।’

মুশফিকের ফরম্যাট বেছে খেলা উচিৎ কি-না জানতে চাইলে সিডন্সের জবাব, ‘আমি মনে করি, মুশফিক সবসময় সামনের বিষয় নিয়ে ভাবে। এখন যেমন দুই টেস্ট ম্যাচ। আমার মনে হয় না সে নিজের কোনো ফরম্যাটের ক্যারিয়ার নিয়ে চিন্তিত। সে এখন এ দুই ম্যাচে আমাদের হয়ে রান করা নিয়ে চিন্তা করছে। তার চিন্তা এখন এ দুই ম্যাচের ওপর। সাদা বলের ক্রিকেটে সে বেশ সফল। যেকোনো ভালো খেলোয়াড়েরই এমন সময় আসে যেখানে সে রান করতে পারে না। সেখান থেকে তারা ঘুরে দাঁড়ায়। এজন্যই তারা গ্রেট প্লেয়ার।’