‘আমার বিশেষ পছন্দনীয় কোন ব্যক্তি নাই’-মাশরাফী

98

নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য ক্রিকেটার মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা গতকাল শুক্রবার (০৬ মে) দিবাগত রাত ১:৪৮ মিনিটে নিজের কাজের জবাবদিহিতা, টেন্ডারবাজি ও বাড়ী দখলসহ নানান অপরাধমূলক কর্মকান্ডের বিষয়গুলি নিজ নির্বাচনী এলাকার মানুষের নিকট নিজের অবস্থান পরিষ্কার করে তার অফিসিয়াল ফেইসবুক পেইজে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে দেয়া স্ট্যাটাসটি নড়াইলকণ্ঠ.কম পাঠকদের জন্য হুবহু তুলে ধরা হলো।

স্ট্যাটাসে তিনি বলেছেন, আসসালামু আলাইকুম।
আমি আপনাদের ভোটে নির্বাচিত প্রতিনিধি, তাই আমি মনে করি আপনাদের কাছে আমার কাজের জবাবদিহিতা নিশ্চিত করা আমার অন্যতম দায়িত্ব। সেই দায়বদ্ধতা থেকে আমি আপনাদের উদ্দেশ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কিছু বিষয় সবিনয়ে অবগত করতে চাই।

আমি বিভিন্ন সময়ে খবর পাই যে, নড়াইলের কোথাও কোথাও অনেকেই নিজেকে আমার গ্রুপ বা আমার লোক বলে পরিচয় দেন। উদাহরণস্বরূপ বলবো, লোহাগড়া পৌরসভার কোন টেন্ডার/ ইজারা হলে সেখানে নাকি আমার নামে একটা গ্রুপ কাজ পায়। এমনকি নড়াইল পৌরসভাসহ বিভিন্ন জায়গায় কিছু লোক এমন পরিচয় দেন বলে আমি জেনেছি।

এবিষয়ে আমি আগেও বলেছি এবং এখন আবারো বলছি, আমার কোন গ্রুপ নাই। আমার বিশেষ পছন্দনীয় কোন ব্যক্তিও নাই। জননেত্রী শেখ হাসিনার আওয়ামী লীগ। এই দলে এটাই একমাত্র গ্রুপ। এখানে আমি কেন, কারো নামেই কোন গ্রুপ নাই। আমি এটি বিশ্বাস করি ও ধারণ করি।

আমার বিশেষ পছন্দনীয় কোন ব্যক্তি নাই। কেউ যদি কোথাও এমনটা পরিচয় দেয়, তাহলে বুঝবেন তিনি ব্যক্তিগত কোন সুবিধা পাওয়ার আশায় আমার নাম ভাঙ্গাচ্ছেন।

আমি সবাইকে নিয়ে পথ চলতে চাই। বিশেষ কাউকে সুবিধা দিতে আপনারা কেউ আমাকে এমপি করেননি। আমি সবার, আর সবাইকে নিয়েও পথ চলতে চাই।

আমার নাম ভাঙ্গিয়ে যদি কেউ ফায়দা লুটতে চায় তাহলে সরাসরি আমাকে অথবা প্রশাসনকে অবগত করবেন।
আমি সবার এমপি হতে চাই। আশা করি, স্বার্থান্বেষী একটি মহলের চক্রান্তে আপনারা আমাকে ভুল বুঝবেন না। আমি কাউকে বিশেষ সুবিধা দিতে কখনো কোথাও ফোন করি না। আমি ক্রিকেটাঙ্গন থেকে জন্মভূমি নড়াইলের রাজনীতিতে এসেছি শুধুমাত্র নড়াইলের কাঙ্ক্ষিত উন্নয়ন করার জন্য, ব্যক্তি উন্নয়ন বা কাউকে বিশেষ সুবিধা দিতে আমি আসিনি এবং এজন্য আপনারাও আমাকে ভোট দিয়ে সংসদ সদস্য নির্বাচিত করেননি।

আমরা সবাই ছোট্ট জেলা নড়াইলের বাসিন্দা। ছোট্ট এই জেলাকে বিভিন্ন গ্রুপ, সাব গ্রুপে ভাগ করে আরো ছোট করে ফেলা, খন্ড-বিখন্ড করা আমাদের সংকীর্ণতার পরিচায়ক। আয়তনে নড়াইল ছোট হলেও ঐক্যে, বন্ধনে আমরা সবাই মিলে অনেক বড় জেলা হতে চাই। আয়তনের ক্ষুদ্রতাকে চিন্তা চেতনার ক্ষুদ্রতা দিয়ে আরো সংকীর্ণ করতে চাই না।
আসুন আমরা সকলে এলক্ষ্যে একসাথে কাজ করি।
মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা (এমপি নড়াইল-২)