নতুন প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনে পাকিস্তানে ভোট সোমবার

2

পাকিস্তানের সংসদের নিম্নকক্ষ জাতীয় পরিষদে (এনএ) অনাস্থা ভোটে ইমরান খান প্রধানমন্ত্রিত্ব হারানোর পর দেশটিতে নতুন প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। সোমবার স্থানীয় সময় দুপুর ২টায় দেশটির পার্লামেন্টের অধিবেশনে সংসদ সদস্যদের ভোটে নতুন প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হবেন।

এর আগে, প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনে সোমবার সকাল ১১টায় জাতীয় পরিষদের অধিবেশন শুরু হওয়ার কথা ছিল। জাতীয় পরিষদের সচিবালয় সূত্রের বরাত দিয়ে দেশটির সংবাদমাধ্যম জিও নিউজ বলছে, প্রধানমন্ত্রী পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার জন্য রোববার দুপুর ২টা পর্যন্ত মনোনয়ন পত্র জমা দিতে পারবেন প্রার্থীরা। পরে বিকেল ৩টা পর্যন্ত মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই চলবে।

নতুন সূচি অনুযায়ী, দেশটির সংসদে নতুন প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে সোমবার দুপুর ২টায়।

অনাস্থা ভোটে হার

পাকিস্তানের ৭৫ বছরের ইতিহাসে প্রথম কোনো প্রধানমন্ত্রী হিসেবে ইমরান খান জাতীয় পরিষদের অধিবেশনে প্রায় ১২ ঘণ্টার ম্যারাথন তর্ক-বিতর্ক শেষে বিরোধীদের অনাস্থা ভোটে ক্ষমতাচ্যুত হয়েছেন। শনিবার দিনভর নানা নাটকীয়তা, দফায় দফায় সংসদের অধিবেশন মুলতবি, সেনাপ্রধানের সঙ্গে ইমরান খানের হঠাৎ সাক্ষাৎ আর গভীর রাতে সুপ্রিম কোর্টের কার্যক্রম শুরুর প্রক্রিয়া ঘিরে দেশটির রাজনৈতিক পরিস্থিতি জটিল মোড় নেয়।

জাতীয় পরিষদের স্পিকার আসাদ কায়সার ও ডেপুটি স্পিকার কাসিম সুরির পদত্যাগের পর মধ্যরাতে প্যানেল স্পিকারের দায়িত্ব পান পাকিস্তান মুসলিম লীগ-নওয়াজ (পিএমএল-এন) দলীয় সাংসদ আয়াজ সাদিক। পরে তার সভাপতিত্বে সংসদে অনাস্থা ভোট অনুষ্ঠিত হয়।

ভোটের প্রক্রিয়া শেষে ফল ঘোষণায় আয়াজ বলেন, প্রধানমন্ত্রীর বিপক্ষে আনা অনাস্থা প্রস্তাবের পক্ষে ভোট দিয়েছেন জাতীয় পরিষদের ১৭৪ সদস্য। ফলে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের বিরুদ্ধে অনাস্থা ভোটের প্রস্তাব সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে পাস হয়েছে।

ভোট এবং ফল ঘোষণা শেষে বিরোধী দলীয় নেতারা সংসদে তাদের বিজয় ভাষণ দেন। পরে সোমবার সকাল ১১টা পর্যন্ত সংসদের অধিবেশন মূলতবি ঘোষণা করা হয়।

সূত্র: জিও নিউজ।