চাঁদা না দিলে ব্যবসা বন্ধ করতে হবে বাদলকে

38

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ ফতুল্লার বক্তাবলীর গোপালনগরে বার্জ ভাড়া এনে ভাড়ার টাকা দেয়ার পরিবর্তে উল্টো মার ধর করে টাকা ছিনিয়ে নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে ফজর আলীর ছেলে জসিমউদ্দিন অরফে কালা জসিম সহ তার সঙ্গীদের বিরুদ্ধে। এর আগেও জসিমউদ্দিন অরফে কালা জসিম বিভিন্ন সময় চাঁদাবাজি সহ অসংক্ষ অভিযোগে অভিযুক্ত হয়েছেন এবার তার বিরুদ্ধে অন্যকম ভাবে অভিযোগ করে ঢাকার খিলগাঁও এলাকার কাঞ্চন আলী হাওলাদারের ছেলে মো.বাদল, জসিমউদ্দিন সহ তার সহযোগিদের বিরুদ্ধে ফতুল্লা মডেল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, মো. বাদল জনৈক মোঃ আলাউদ্দিন শেখের নিকট হতে একটি বার্জ ভাড়া নিয়ে বিভিন্ন ছোট ছোট প্রজেক্টে সাব ভাড়া দিয়ে ব্যবসা পরিচালনা করে আসছি। ১নং বিবাদী মো.জসিমউদ্দিন গত বছরের ১৯ ডিসেম্বর বার্জ মাসিক ৩ লাখ টাকা ভাড়া চুক্তিপত্র সম্পাদন পূর্বক এনআরবিসি ব্যাংক পঞ্চবটি শাখার ইস্যুকৃত ৪ টি চেক প্রদান পূর্বক ভাড়া নেয়। ভাড়া নেওয়ার সময় জসিমউদ্দিনের সাথে কথা হয়েছিল যে, প্রতি মাসে ভাড়া প্রদানের পর একটি করে চেক ফেরত নিয়ে যাবে। কিন্তু ভাড়া নেওয়ার পর থেকে জসিমউদ্দিন অদ্য পর্যন্ত কোন প্রকার ভাড়া প্রদান না করে উল্টো বিভিন্ন প্রকার টালবাহানা প্রদর্শন করে আসছে বলে অভিযোগ করেন বাদল। এরই প্রেক্ষিতে জসিমউদ্দিন কাছে ৩ মাসের ভাড়া জমে গেলে বক্তাবলী ফেরিঘাটের দক্ষিণ পাশের এলাকায় গিয়ে বিবাদীর নিকট বকেয়া ভাড়া চাইলে অভিযোগকারী বাদলকে অকথ্য ভাষায় গালি গালাজ করে হুমকি দেয়। ২৪ মার্চ দুপুর ১২টায় আলাউদ্দিন শেখের কাছে গেলে জসিমউদ্দিন সহ তার সহযোগী অজ্ঞাতনামা ৪/৫ জন দেশীয় ধারালো অস্ত্রশস্ত্র এবং মোটা কাঠের ডাসা নিয়া অতর্কিত হামলা শুরু করে, মারপিট করে নগদ আড়াই লাখ টাকা ছিনে নেয়।