ধর্ষণ মামলায় ছাত্র অধিকারের মামুনের বিচার শুরু

30

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের অভিযোগে লালবাগ থানায় দায়ের করা মামলায় বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা আহ্বায়ক হাসান আল মামুনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেছেন আদালত। এর মধ্য দিয়ে এ মামলার আনুষ্ঠানিক বিচার কাজ শুরু হলো।

আজ বৃহস্পতিবার ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ এর বিচারক মুহাম্মদ হাবিবুর রহমান সিদ্দিকীর আদালত অব্যাহতির আবেদন খারিজ করে এ অভিযোগ গঠন করেন। মামলার বাদী নিজে বিষয়টি কালের কণ্ঠকে জানিয়েছেন।

মামলার বাদী ও ভুক্তভোগী সেই শিক্ষার্থী বলেন, ‘অনেক প্রতীক্ষার পর আজ আসামি মামুনের বিরুদ্ধে আদালত চার্জ গঠন করেছে। দ্রুত এ মামলার বিচার কাজ শেষে মামুনের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি। ‘

এদিন কারাগারে আটক মামুনকে আদালতে হাজির করা হয়। এসময় আসামি হাসানকে নির্দোষ দাবি করে অব্যাহতির আবেদন করেন তার আইনজীবী। অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষ অভিযোগ গঠনের পক্ষে শুনানি করেন। উভয় পক্ষের শুনানি শেষে আদালত অব্যাহতির আবেদন খারিজ করে অভিযোগ গঠনের আদেশ দেন। একইসঙ্গে সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য আগামী ৬ এপ্রিল দিন ধার্য করেন আদালত।

এর আগে গত বছরের ৩ নভেম্বর আসামি হাসানের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র গ্রহণ করেন আদালত। একইসঙ্গে এ মামলায় সাবেক ভিপি নুরসহ পাঁচজনকে অব্যাহতি দেন আদালত।

২০২০ সালের ২০ সেপ্টেম্বর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থী লালবাগ থানায় বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা আহ্বায়ক হাসান আল মামুনকে প্রধান আসামি করে ছয় জনের বিরুদ্ধে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণের অভিযোগে মামলাটি দায়ের করেন। তদন্ত শেষে গত বছরের ১৭ জুন মামুনকে অভিযুক্ত করে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা আসলাম উদ্দিন মোল্লা আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। একইসঙ্গে অভিযোগের সত্যতা না পাওয়ায় সাবেক ভিপি নুরসহ পাঁচকে অব্যাহতির সুপারিশ করা হয়।