ইসি গঠন: প্রস্তাবিত নাম বাছাই করতে বৈঠকে সার্চ কমিটি

41

প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও অন্যান্য নির্বাচন কমিশনার নিয়োগের জন্য রাষ্ট্রপতি কর্তৃক গঠিত সার্চ (অনুসন্ধান) কমিটির চতুর্থ বৈঠক শুরু হয়েছে। ইসি গঠনে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও সংগঠনের প্রস্তাবিত নাম নিয়ে বৈঠকে আলোচনা হতে পারে।

বুধবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) বিকেল সোয়া ৪টায় সুপ্রিম কোর্টের জাজেস লাউঞ্জে এ বৈঠক শুরু হয়েছে। এখন প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও অন্যান্য নির্বাচন কমিশনার বাছাইয়ে নাম চূড়ান্ত করার পালা অনুসন্ধান কমিটির সামনে। তাই ধারণা করা হচ্ছে, ইসি গঠনে রাজনৈতিক দল ও বিভিন্ন সংগঠন যেসব ব্যক্তির নাম প্রস্তাব করেছে- বৈঠকে সেসব নাম পর্যালোচনা করে চূড়ান্ত করার দিকে এগোতে পারেন তারা।

এর আগে মঙ্গলবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম জানান, প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও অন্যান্য নির্বাচন কমিশনার নিয়োগের লক্ষ্যে বুধবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) থেকে ১০ জনের নামের প্রস্তাবের প্রক্রিয়া শুরু করা হবে।

তিনি বলেন, সার্চ কমিটির কাছে প্রস্তাবিত ৩২২ জনের তালিকা যাচাই-বাছাই করা হচ্ছে। যাদের নাম দুবার এসেছে, তাদের নাম একবার করা হয়েছে। দ্রুত সময়ের মধ্যে ১০ জনের নাম রাষ্ট্রপতির কাছে প্রস্তাব করা হবে।

এজন্য বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, সংগঠন ও ব্যক্তির কাছ থেকে পাওয়া তিন শতাধিক নাম নিয়ে আজ (বুধবার) বৈঠকে বসেছে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের নেতৃত্বাধীন সার্চ কমিটি।

মঙ্গলবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে সুপ্রিম কোর্টের জাজেস লাউঞ্জে চার জ্যেষ্ঠ সাংবাদিকের সঙ্গে বৈঠকের পর এমন কথা জানান কমিটির সাচিবিক দায়িত্বে থাকা মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম।

নাম প্রস্তাব না করা নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলগুলোকে গত ১১ ফেব্রুয়ারি বিকেল ৫টা পর্যন্ত নাম প্রস্তাবের সময় দিয়েছিল সার্চ কমিটি। ওই সময়ের মধ্যে ২৪টি রাজনৈতিক দল, ছয়টি সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন ও ব্যক্তিগতভাবে অনেকে নাম জমা দেন।

তবে বিএনপি, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টিসহ (সিপিবি) ১৫টি দল নাম জমা দেয়নি। পরে গত সোমবার বিকেল ৫টা পর্যন্ত রাজনৈতিক দলগুলোর কাছ থেকে নামের প্রস্তাব নেওয়ার সময় বাড়ায় অনুসন্ধান কমিটি। গত সোমবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) বিভিন্ন মাধ্যমে প্রস্তাব আসা ৩২২ জনের নাম প্রকাশ করা হয়।

প্রস্তাবিত নাম যাচাই-বাছাই করে সংক্ষিপ্ত তালিকা করা হয়েছে জানিয়ে মঙ্গলবার মন্ত্রিপরিষদ সচিব সাংবাদিকদের বলেন, নামগুলো এডিট করা হয়েছে। কাল (আজ বুধবার) নামগুলো তাদের (অনুসন্ধান কমিটির) সামনে উপস্থাপন করা হবে। তারা কার্যপদ্ধতি ঠিক করে বাছাইয়ের দিকে যাবেন।

রাষ্ট্রপতির কাছে সুপারিশের জন্য কবে নাগাদ চূড়ান্ত করা হবে জানতে চাইলে তিনি বলেন, সার্চ কমিটি যত তাড়াতাড়ি সম্ভব ১০টি নাম চূড়ান্ত করবে।

প্রকাশিত নাম থেকে ১০টি নাম চূড়ান্ত করা হবে কি না— এমন প্রশ্নে আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, সার্চ কমিটি যেভাবে সার্চ করার কথা, সেভাবেই করবে। তারা যদি মনে করেন আরও সার্চ প্রয়োজন, সেটি তারা দেখবেন। বুধবার অনুসন্ধান কমিটি এ নিয়ে বৈঠকে বসবে। এর আগে সার্চ কমিটি নিজেরা তিনটি বৈঠক করেছেন। এছাড়াও বিশিষ্ট নাগরিক ও সাংবাদিকদের সঙ্গে চারটি আলাদা বৈঠক করেন তারা।

সার্চ কমিটির সভাপতি সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের নেতৃত্বে বৈঠক অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এ ছাড়াও বৈঠকে উপস্থিত রয়েছেন- সার্চ কমিটির সদস্য হাইকোর্টের বিচারপতি এস এম কুদ্দুস জামান, মহা-হিসাব নিরীক্ষক ও নিয়ন্ত্রক (সিএজি) মোহাম্মদ মুসলিম চৌধুরী, সরকারি কর্ম কমিশনের (পিএসসি) চেয়ারম্যান মো. সোহরাব হোসাইন, সাবেক নির্বাচন কমিশনার ছহুল হোসাইন এবং লেখক-অধ্যাপক আনোয়ারা সৈয়দ হক। সার্চ কমিটিকে সাচিবিক সহায়তা দিচ্ছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম।

‘প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও অন্যান্য নির্বাচন কমিশনার নিয়োগ আইন, ২০২২’ অনুসারে নির্বাচন কমিশন গঠনে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের নেতৃত্বে ছয় সদস্যের সার্চ কমিটি গঠন করে গত ৫ ফেব্রুয়ারি মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়। আইন অনুযায়ী কমিটিকে ১৫ কার্যদিবসের মধ্যে রাষ্ট্রপতির কাছে সুপারিশ পেশ করতে হবে।