লাল গোলাপ যেন আজ সোনার হরিণ

4

গোলাপকে বলা হয় ফুলের রানি, সৌন্দর্যের প্রতীক। দামের দিক দিয়ে গোলাপের চেয়ে রয়েছে অমূল্য আরও কিছু ফুল। তবে বিশ্ব ভালোবাসা দিবস ও পহেলা ফাল্গুনে এ গোলাপ যেন হয়ে উঠেছে সোনার হরিণ। যে গোলাপ কয়েকদিন আগেও বিক্রি হতো ১০ থেকে ১৫ টাকায়, সেটি এখন বিক্রি হচ্ছে ৫০ থেকে ৭০ টাকায়, তাও পাওয়া যাচ্ছে না।

সোমবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) জামালপুরের বিভিন্ন উপজেলায় ফুলের দোকানে ঘুরে ঘুরে এমন দৃশ্য চোখে পড়ে।

ক্রেতাদের অভিযোগ, আগে যে ফুল বিক্রি হতো ১০ থেকে ১৫ টাকা, সেই ফুল এখন ৫০ থেকে ৭০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

এ ব্যাপারে ফুল ক্রেতা মিজানুর রহমান পারভেজ জানান, এর আগে ফুলের দাম এতো ছিলো না। গত কয়েকদিন ধরে এ বাজারে আগুন লেগে গেছে। যে ফুলের দাম ১৫ থেকে ২০ টাকা ছিলো সেটি এখন ৪০ থেকে ৫০ টাকাতেও পাওয়া যাচ্ছে না।

এটার কারণ হিসেবে তিনি জানান, একেতো বাঙালির ঐতিহ্য পহেলা ফাল্গুন, তারপর একইদিনে বিশ্ব ভালোবাসা দিবস। এ দিবসগুলোতে সব ফুলের চাহিদাই বেড়ে যায়। তবে গোলাপের চাহিদা থাকে সবার উপরে।

এ বিষয়ে ফুল বিক্রেতা মজনু  বলেন, এ দিবসকে ঘিরে প্রতিবছরই ফুলের চাহিদা বেড়ে যায়। বিশেষ করে এ দিবসে লাল গোলাপের চাহিদা থাকে সবচেয়ে বেশি। আজ আমরা প্রতিটি লাল গোলাপ বিক্রি করছি ৩০ থেকে ৬০ টাকায়। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে দামও আরেকটু বাড়তে পারে বলে তিনি জানান।


ফুল বিক্রেতা সোহেল  বলেন, গত কয়েক দিনের তুলনায় আজ বেশ বিক্রি বেড়েছে, বিশেষ করে লাল গোলাপের চাহিদা সবচেয়ে বেশি। প্রতিটি গোলাপ বিক্রি হচ্ছে ৬০ থেকে ৭০ টাকায়।

দাম বেশির ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি জানান, কিনেছি বেশি দিয়ে। তাই বিক্রিও বেশি দামে করছি।