ভারতে ৫০ ওভার ব্যাটিং করতে চায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ

30

ঘরের মাঠে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের এক সপ্তাহ হয়নি। সেই সিরিজের শেষ দুই ম্যাচ আবার ছিল পরপর দুই দিন। শ্বাসরুদ্ধকর লড়াইয়ে শেষ ম্যাচ জিতে সিরিজটি নিজেদের করে নিয়েছিল স্বাগতিক দল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। এখন সপ্তাহখানেকের মধ্যেই নতুন লড়াইয়ে নামতে হচ্ছে ক্যারিবীয়দের।

ভারতের মাটিতে তিনটি করে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি খেলবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। মাঠের লড়াই শুরুর আগে বেশ কঠিন অবস্থার মধ্যেই যেতে হচ্ছে তাদের। আহমেদাবাদে তিনদিন কোয়ারেন্টাইনের পর করোনা পরীক্ষায় নেগেটিভ পেয়ে শুক্রবার চারজনের গ্রুপে ভাগ হয়ে অনুশীলন করতে পেরেছে তারা।

রোববার থেকে শুরু হচ্ছে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ। এর আগে শুধুমাত্র শনিবার পূর্ণাঙ্গ দলীয় অনুশীলন করতে পেরেছে সফরকারীরা। এই অবস্থার মধ্যেই ভারতের ১ হাজারতম ওয়ানডের প্রতিপক্ষ হচ্ছে ক্যারিবীয়রা। সম্প্রতি দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে ০-৩ ব্যবধানে হোয়াইটওয়াশ হওয়ায় ঘুরে দাঁড়াতে মরিয়া ভারত।

তাই নিজেদের অবস্থা বিবেচনা করে ভারতের বিপক্ষে নিজ দলের কাছে চাওয়াটা খুব বড় নয় ক্যারিবীয় অধিনায়ক কাইরন পোলার্ডের। ওয়ানডে সিরিজে তিনি চান, দল যেনো পুরো ৫০ ওভার খেলতে পারে। ঘরের মাঠে আয়ারল্যান্ডের কাছে ১-২ ব্যবধানে সিরিজ হারের ক্ষত ভুলতে এটিই চান পোলার্ড।

ম্যাচের আগে সংবাদ সম্মেলনে পোলার্ড বলেছেন, ‘ভারতের বিপক্ষে এই সিরিজে আমাদের দেখতে হবে কীভাবে ৫০ ওভার ব্যাটিং করা যায়। অস্ট্রেলিয়া ও আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজগুলোতে আমরা পুরো ৫০ ওভার ব্যাটিং করতে পারি। তাই আমাদেরকে এ দিকটিতে নজর দিতে হবে।’

তবে কাজটি যে চ্যালেঞ্জিং সেটি জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আমাদের জন্য পুরো বিষয়টা হলো নতুনভাবে শুরু করার মতো। শনিবার আমাদের একমাত্র পূর্ণাঙ্গ অনুশীলন ছিল। এরপর আমাদের আলোচনা, পরিকল্পনা সাজানোর কাজ কররে হয়েছে। আমি জানি কেউ এগুলো শুনতে চায় না। কারণ আমাদেরকে মাঠে পারফর্ম করতে হবে।’

‘তবে এটিও সত্যি যে কিছু চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন হতে হয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটারদের। অল্প সময়ের মধ্যে আমরা যা করতে পারি তা হলো, মানসিক দিক থেকে সঠিক জায়গায় থাকা এবং নিজেদের মধ্যে আলোচনা করে গতিবিধি ও পরিকল্পনা ঠিকভাবে সাজিয়ে নেওয়া।’