ফরাসি রাষ্ট্রদূতকে বহিষ্কার করেছে মালি

9

ফরাসি রাষ্ট্রদূতকে বহিষ্কার করেছে মালির সামরিক জান্তা সরকার। মালির অন্তর্বর্তীকালীন সরকার সম্পর্কে ফরাসি পররাষ্ট্রমন্ত্রীর করা ‘আপত্তিকর’ মন্তব্যকে কেন্দ্র করেই এমন পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে বলে জানানো হয়। খবর বিবিসির।

এদিকে ফ্রান্স বলছে, তাদের রাষ্ট্রদূত জোয়েল মেয়েরকে ডেকে পাঠানো হয়েছে। তাকে মালি ছাড়ার জন্য ৭২ ঘণ্টা সময় দেওয়া হয়েছে।

গত সপ্তাহে ফ্রান্সের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জিন-ইয়েভস লে দ্রিয়ান বলেন, মালির জান্তা সরকার ‘অবৈধ’ এবং পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেছে।

সাবেক এই ফরাসি উপনিবেশে রাশিয়ার ক্রমবর্ধমান সম্পৃক্ততার বিষয়েও উদ্বেগ প্রকাশ করেছে পশ্চিমা শক্তির দেশগুলো।

বিদ্রোহীদের সঙ্গে লড়াইয়ে স্থানীয় নিরাপত্তা বাহিনীকে শক্তিশালী করার জন্য কয়েক সপ্তাহ ধরে সামরিক সহায়তা দিয়ে যাচ্ছে মস্কো। বেশ কিছু বেনামি সূত্র বলছে, রাশিয়ার হাজার হাজার ভাড়াটে সেনা সেখানে কাজ করছে।

এর মালি সরকারকে সহায়তা দিতে ২০১৩ সালে দেশটিতে হস্তক্ষেপ করেছিল ফ্রান্স। এবার তারা মালি থেকে সেনা মোতায়েন কমিয়ে আনার পরিকল্পনা করছে।

জান্তা সরকারকে রক্ষার বিনিময়ে রাশিয়ার ভাড়াটে সেনারা মালির সম্পদ থেকে সুবিধা নিচ্ছে বলেও অপর এক সাক্ষাতকারে অভিযোগ তুলেছেন লে দ্রিয়ান।

বিশ্বের অন্যতম দরিদ্র দেশ মালি। ফ্রান্সের সঙ্গে তাদের আগে সম্পর্ক ভালো থাকলেও ২০২০ সালের আগস্টে সামরিক বাহিনী ক্ষমতা দখলের পর দুদেশের মধ্যে সম্পর্কের অবনতি ঘটে।

চলতি মাসে দেশটিতে নির্বাচনের ব্যবস্থা করার কথা থাকলেও সে সংক্রান্ত একটি চুক্তি বাতিল করেছে জান্তা সরকার এবং ২০২৫ সাল পর্যন্ত ক্ষমতায় থাকার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে তারা। এরপরেই উত্তেজনা আরও বেড়েছে।